নীলফামারী সরকারি কলেজের বেসরকারি কর্মচারীদের মজুরী বৃদ্ধির দাবি

Saturday, April 4th, 2020

 

ইমরান বিন হাসনাত (নীলফামারী জেলা প্রতিনিধি) নীলফামারী জেলার সরকারি কলেজে কর্মরত বেসরকারি কর্মচারীদের মজুরী বৃদ্ধির দাবি জানিয়েছে মজুরীভিত্তিক কর্মচারীবৃন্দ। কলেজের ১৪ টি বিভাগ সহ বর্তমানে বেসরকারি মজুরীভত্তিক কর্মচারীদের সংখ্যা ৬৫ জন। কর্মচারীরা যে মজুরী পায় তা দিয়ে বর্তমানে জীবন যাপন করাটা অসম্ভব। বর্তমান প্রতিটি দ্রব্যমূল্যের দাম বৃদ্ধি হওয়ায় পরিবার পরিজন নিয়ে তাদের জন্য জীবিকা নির্বাহ করাটা কষ্টকর হয়ে দাঁড়িয়েছে।

অত্র কলেজে কর্মরত অফিসের স্টোর কিপার, ক্যশ সহকারী, হিসাব সহায়তাকারী পদে কর্মরত কর্মচারীদের মজুরীও খুব বেশি নয়। আবার অন্যদিকে এরা পদমর্যাদা অনুযায়ী মজুরী পান না। এ সল্প মজুরী দিয়ে তাদের জীবিকা নির্বাহ করাটা অত্যান্ত কষ্টকর। একজন রিকশা চালক,অটো চালক, একজন দিন হাজিরা খেটে খাওয়া মানুষ যদি প্রতিদিনের ন্যায় ৪ শত থেকে ৫ শত টাকা পায় তাহলে দেখা যায়, তাদের মাথাপিছু আয় ১২ থেকে ১৫ হাজার টাকা। আর একজন কলেজের কর্মচারীর মাসিক মজুরী তাদের চেয়েও অনেক কম। তাহলে এদের মূল্যায়নটা ঠিক কোথায়?

জানা গেছে, ইতিমধ্য কর্মরত উক্ত ৬৫ জনের তালিকায় বাহক বাদে অফিসের গুরুত্বপূর্ণ ৩ টি পদে যারা চাকুরী করছেন তাদের পৃথকভাবে নাম উল্লেখপূর্বক পদমর্যাদা অনুযায়ী মজুরী প্রদানের জন্য কর্মচারী কল্যাণ কমিটির আহবায়ক মোঃ তারিকুল আলমকে অবগত করা হয়েছে। কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর দেবীপ্রসাদ রায়ের কাছে এ বিষয়ে সকল কর্মচারীবৃন্দরা লিখিত আবেদন করেন। অধ্যক্ষ মহোদয় আগামী একাডেমিক কাউন্সিলের মিটিংয়ে বেসরকারী কর্মচারীদের মজুরী বৃদ্ধি করে অবসরে যাবেন বলে আশ্বস্ত করেন। কর্মচারীরা তাদের মজুরীর হার গড়ে ২৫০০-৩০০০/-টাকা বৃদ্ধির জোর দাবী জানান।