সাতক্ষীরা জেলায় নতুন করে আরো ৪০২ জনসহ কোয়ারেন্টাইনে ১৫৬২ জন

Wednesday, March 25th, 2020

 

ভবতোষ কুমার মন্ডল (সাতক্ষীরা প্রতিনিধি) সাতক্ষীরায় গত ২৪ ঘন্টায় বিদেশ ফেরত আরো ৪০২ জনকে নতুন করে হোম কোয়ারেন্টাইনের আওতায় আনা হয়েছে।এনিয়ে গত ৯ দিনে সাতক্ষীরায় বিদেশ ফেরত ১৫৬২ জন হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছে।হোম কোয়ারেন্টাইনের বাইরে রয়েছে প্রায় ৮ হাজার ৪ শ’ ৫৩ জন।

এর মধ্যে সাতক্ষীরা সদর উপজেলায় ১৬৩ জন, আশাশুনি উপজেলায় ১০৮ জন, দেবহাটা উপজেলায় ১৮৭ জন, কালিগঞ্জ উপজেলায় ২২২ জন, কলারোয়া উপজেলায় ৪৭০ জন, শ্যামনগর উপজেলায় ২০৪ জন ও তালা উপজেলায় ২০৭ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে নেওয়া হয়েছে।এছাড়া সাতক্ষীরা সদর হাসপাতাল আইসোলেশনে রয়েছেন এক জন।

তবে,করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি থাকা যুবকের শরীরে করোনাভাইরাসের কোনো অস্তিত্ব মেলেনি। তাকে যে কোনো মুহূর্তে হাসপাতাল থেকে রিলিজ দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

উল্লেখ্য,সদর হাসপাতালে ভর্তি থাকা ওই যুবক শ্যামনগর উপজেলার বাসিন্দা। তিনি ভারতের মুম্বাই শহর থেকে ভোমরা বন্দর দিয়ে সম্প্রতি দেশে প্রবেশ করেছেন।

সাতক্ষীরা জেলা করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রন কমিটির সভাপতি জেলা প্রশাসক এস.এম মোস্তফা কামাল জানান, বিদেশ ফেরতদের ইতিমধ্যে হোম কোয়ারেন্টাইনের আওতায় আনার কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন ও স্বাস্থ্য বিভাগ। বিদেশ ফেরতদের বাড়িতে,বাড়িতে টানানো হচ্ছে লাল ফ্লাগসহ তাদের হাতে মারা হচ্ছে সনাক্তকরন সিল। এছাড়া বন্ধ ঘোষনা করা হয়েছে সকল পর্যটন কেন্দ্র ও গোহাট। নিষিদ্ধ করা হয়েছে জেলায় সকল ধরনের সভা সমাবেশ, সেমিনার, সামাজিক অনুষ্ঠানসহ সকল প্রকার গণজমায়েত। চলছে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান।

এদিকে, সাতক্ষীরার ভোমরা ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট দিয়ে দুই দেশে আটকে থাকা পাসপোর্ট যাত্রীর আসা-যাওয়া স্বাভাবিক রয়েছে। যদিও দু দেশেই নতুন করে কোন পাসপোর্ট যাত্রীকে প্রবেশাধিকার না থাকায় যাত্রী সংখ্যা অনেক কমে গেছে।