সারাদিনের শক্তি যোগায় সকালের যে অভ্যাসগুলো

Sunday, January 26th, 2020
সকালের যে অভ্যাসগুলো সারাদিনের শক্তি যোগায়
ডেস্ক নিউজঃ সকালকেই সারাদিনের সবচেয়ে শক্তিশালী অংশ হিসেবে বিবেচনা করা হয়। দিন শুরুর প্রথম দুই ঘণ্টা আপনি কীভাবে ব্যয় করবেন তার ওপরেই আপনার সারাদিনের ভালো থাকাটা নির্ভর করে। এটি আপনাকে মনোনিবেশিত, উদ্যমী এবং সময় মতো কাজ শেষ করার দিকে সক্রিয় রাখে। আপনি যদি সকালটি খুব ভালোভাবে শুরু করেন, তবে আপনার গোটা দিনটিই ভালো কাটবে।

বিছানা গোছানো : সকালে ঘুম থেকে উঠে বিছানা গোছানো কতটা জরুরি তা হয়তো অনেকেই জানে না। কিন্তু, সকালে আপনার বিছানা গোছানোই আপনাকে সারাদিন সংগঠিত রাখতে সহায়তা করবে। সকালে বিছানা গোছালে আপনার গোটা দিনটিও গোছানো হবে। হয়তো এটি আপনার কাছে সাধারণ গৃহস্থালির কাজ মনে হতে পারে, কিন্তু এটির একটি মনস্তাত্ত্বিক দিকও রয়েছে। সকালে ঘুম থেকে উঠে আপনি আপনার বিছানা গোছানোর পর মানসিক তৃপ্তি পাবেন এবং আপনার মনে হবে, আপনি দিনের প্রথম কাজটি শেষ করে ফেলেছেন। এটি আপনার দিনটি সুন্দরভাবে শুরু করতে সহায়তা করবে। এছাড়াও, এটি আপনার বাড়িও পরিষ্কার রাখে!

খালি পেটে পানি পান করুন : শরীর ভালো থাকার জন্য যথেষ্ট পানির প্রয়োজন। সকালে খালি পেটে এক গ্লাস পানি পান করলে, তা শরীর থেকে সব ধরনের টক্সিন বের করতে সাহায্য করবে। ঠাণ্ডা, গরম বা লেবু পানি, যে কোনওটাই হতে পারে। শুধু সকালে পানি পান করতে ভুলবেন না।

শরীর চর্চা : শরীর চর্চা আপনার প্রতিদিনের সকালের আচারগুলির মধ্যে একটি অংশ হওয়া উচিত। যে ধরনের শরীর চর্চাই করুন না কেন সেটাই শরীরের জন্য অত্যন্ত প্রয়োজনীয়। আপনার শরীরকে সুস্থ ও স্বাস্থ্যকর রাখার জন্য সকালে কিছুটা সময় বের করুন। সকালে যেকোনও ধরনের শারীরিক পরিশ্রম করলেই শরীর থেকে সুখী হরমোন নিঃসৃত হয়। আর এতে গোটা দিনটিই আপনার আনন্দে, খুশিতে কাটে।

সারাদিনের তালিকা প্রস্তুত করুন : সকালবেলাই একটি তালিকা প্রস্তুত করুন সারাদিন কী কী করবেন তার জন্য। এর ফলে আপনি আপনার সময়কে আরও ভালোভাবে ব্যবহার করতে পারবেন এবং আপনার কোনও গুরুত্বপূর্ণ কাজ অসম্পূর্ণ থাকবে না। এভাবে রুটিন তৈরি করলে আপনার কাজ অনেক সহজ হবে।

ফোন দেখা বন্ধ করুন : এটা অস্বীকার করার উপায় নেই যে মোবাইল সত্যিই আমাদের জীবনকে আরও সহজ করে তুলেছে এবং এটি ছাড়া চলার কথা আমাদের কল্পনাতেও আসে না। তবে এর অর্থ এই নয় যে আপনি সারাক্ষণ ফোনের পর্দায় তাকিয়ে থাকবেন। তাই সকালে ফোন দেখা বন্ধ করুন এবং সকালটা নিজেকে সময় দিন ও মন শান্ত রাখুন। কয়েক ঘণ্টা ফোন থেকে দূরে থাকা এমন কিছু কঠিন কাজ নয়।

ভালো করে নাশতা করুন : আপনি খালি পেটে কখনোই কোনো কাজ করতে পারবেন না। তাছাড়া সকালে খালি পেটে থাকাও উচিত নয়। তাই প্রতিদিন সকালে ভালো করে নাশতা করতে ভুলবেন না। আপনি যা পছন্দ করেন তাই খান, কিন্তু অতিরিক্ত খেয়ে ফেলবেন না এতে আপনার ঘুম পাবে এবং অলস বোধ হবে। নাশতা আপনাকে কার্য সম্পাদন করার শক্তি দেয়।

নিজেকে রেডি করুন : সকালের অভ্যাসগুলির মধ্যে অন্যতম হল সারাদিনের জন্য নিজেকে প্রস্তুত করা। সকালে আগে খবরের কাগজ পড়বেন, কাপড় ইস্ত্রি করবেন না গোসল করবেন, তা ঠিক করতে অনেকেই হিমশিম খেয়ে যায়। তাই, কীভাবে নিজেকে তৈরি করবেন তার একটি রুটিন বানান। নাহলে সমস্যায় পড়বেন। এটি কেবল সময়ই সাশ্রয় করবে না, পাশাপাশি আপনাকে সংগঠিতও রাখবে।