গত অর্থবছরে পোশাকশিল্প থেকে ৩৪ বিলিয়ন ডলার রপ্তানী হয়েছে

Saturday, January 25th, 2020

 

মোঃআলী হোসেন (সাভার প্রতিনিধি) গত অর্থবছরে বাংলাদেশের পোশাক কারখানাগুলো থেকে প্রায় ৩৪ বিলিয়ন ডলার রপ্তানী করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ পোশাক রপ্তানী প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান বিজিএমইএর প্রেসিডেন্ট ড. রুবানা হক।

শনিবার (২৫ জানুয়ারি) দুপুরে সাভারের দত্তপাড়া এলাকায় ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির অষ্টদশ প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর সমাপনী অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে তিনি একথা বলেন।

ড. রুবানা হক এসময় আরও বলেন, বর্তমানে বাংলাদেশে পোশাক কারখানাগুলোতে প্রায় চল্লিশ লক্ষ শ্রমিক কাজ করছে। শ্রমিকের মজুরী এবং দক্ষতার মধ্যে গ্যাপ আছে কিন্তু আমাদের শ্রমিককে আরও পারদর্শিক করার জন্য ইন্ডাষ্ট্রিয়াল ইঞ্জিনিয়ারিং এর প্রয়োজন রয়েছে। শ্রমিকদের জীবন মান উন্নয়নের জন্য নূন্যতম মজুরী বাড়াই কিন্তু শ্রমিকের জীবন মান উন্নয়ন হয় না। কারণ যে মূহুর্তে মজুরীটি বাড়ে সেই সাথে সাথে যানবাহনের খরচটাও বাড়ে এবং বাড়িওয়ালারাও ঘর ভাড়ার দাম বাড়ান ও দ্রব্যমুল্যেরও দাম বেড়ে যায়, যার ফলে শ্রমিকরা ওই ভাবে উপকৃত হন না।

বিজিএমইএর প্রেসিডেন্ট আরও বলেন, আগামী অর্থ বছরে আমরা বাজেটে প্রস্তাব রাখবো যেনো শ্রমিকদের জন্য আবাসন গৃহায়ণ ও খাদ্যে এই তিনটি যায়গায় সরকার একটু মনোযোগী হন। কারণ সরকারের একটা বড় সামাজিক খাত রয়েছে, এবছর সেটা ৭৪ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়েছেন। আমরা আশাকরি আরও দুইশত কোটি টাকা যদি আমাদের শ্রমিকদের জন্য বরাদ্দ রাখা হয় তাহলে শ্রমিকদের জন্য কিছুটা সাশ্রয় হবে। এখন বাংলাদেশের শ্রমিকরা বিদেশের কারখানায় কাজ করছে, তারা এখন বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ছে এবং এশিয়ান ইউনিভার্সিটিতে আগামী নয় মে প্রায় দশজন শ্রমিক গ্যাজুয়েট করছেন এটি ইতিহাস সৃষ্টি করবে এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবার্ষিকীতে গ্র্যাজুয়েট করায় সেটা আমাদের জন্য অহংকারের বিষয়।

অনুষ্ঠানে এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সাবেক সেনাবাহিনী প্রধান আবু বেলাল মোহাম্মদ শফিউল হক, ড্যাফোডিল ইউনিভার্সিটির ট্রাষ্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান ড.সবুর খান, উপাচার্য অধ্যাপক ড.ইউসুফ মাহবুবুল ইসলামসহ আরো অনেকে।

উল্লেখ্য, এর আগে বিজিএমইএর প্রেসিডেন্ট ড্যাফোডিল ইউনিভার্সিটিতে প্রয়াত মেয়র আনিসুল হকের নামে একটি ভবন উদ্বোধন করেন।