ঠাকুরগাঁওয়ে রাণীশংকৈলে পুকুর খনন করে মাটি বিক্রি করা হয় ইটভাঁটায়

Thursday, January 23rd, 2020

 

মোঃ মজিবর রহমান শেখ (ঠাকুরগাঁও জেলা প্রতিনিধি) সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ঠাকুরগাঁও জেলার রাণীশংকৈল উপজেলার একাধিক কৃষি জমিতে অবাধে পুকুর খনন চলছে। পুকুর খননে কৃষি জমির ক্ষতি হলেও প্রশাসন যেন কিছুই দেখছে না। প্রভাবশালীরা থেকে যাচ্ছেন ধরাছোঁয়ার বাইরে।

সরেজমিনে দেখা যায়- রানীশংকৈল উপজেলার নেকমরদ করনাইট গ্রামের রাস্তাসংলগ্ন ফসলি জমিতে এক্সকাভেটর লাগিয়ে প্রায় দুই বিঘা জমিতে পুকুর খনন করা হচ্ছে। আর পুকুর খননের সেই মাটি ইট ভাটায় মাটি বিক্রি করা হচ্ছে। এলাকার মানুষের চলাচলের রেকর্ডভুক্ত ১৩ ফিট রাস্তা কেটে পুকুর খনন করার অভিযোগ রয়েছে এলাকাবাসীর।

পুকুর খননকারীরা প্রভাবশালী বলে তাদের বিরুদ্ধে কেউ কথা বলার সাহস পাচ্ছে না। রাস্তাটি কেটে পুকুর খননের কারণে ঐ এলাকায় কোন ট্র্রাক বা পিকআপ প্রবেশ করতে পারেনা। এতে আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়ছে ঐ এলাকার একাধিক ফল বাগানের মালিক ও কৃষকেরা। জমির মালিক কৃষক আবুল হাসেম তিন লক্ষ টাকার বিনিময়ে ১০ বছরের জন্য লিজ দিয়েছেন জামিল নামে এক ব্যবসায়ীকে। বর্তমানে জামিল ওই জমি থেকে মাটি তুলে বিক্রি করছেন স্থানীয় তিনটি ইট ভাটায়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে-ঠাকুরগাঁও কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক আফতাব হোসেন বলেন, একদিকে পুকুর খনন যেমন আইনবিরোধী, তেমনি ফসল নষ্ট করে পুকুর খনন প্রকৃতিরও গুরুতর ক্ষতি করে।

ঠাকুরগাঁও অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) আমিনুল ইসলাম জানান, এ বিষয়ে তদন্ত সাপেক্ষে অবশ্যই ব্যবস্থা নেওয়া হবে।