তানোরে ধর্ষণ মামলার বাদিকে হুমকি

Saturday, December 14th, 2019


তানোর (রাজশাহী) প্রতিনিধি : রাজশাহীর তানোরের তালন্দ ইউপির আড়াদীঘি গ্রামে আলোচিত ভিক্ষুক ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি আড়াদীঘি গ্রামের ছালেক উদ্দিনের পুত্র জালাল উদ্দিন জামিনে বেরিয়ে এসেই মামলা তুলে নিতে ভিকটিম পরিবারকে নানা ভাবে ভয়ভীতি ও হুমকি প্রদর্শন করছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এই ঘটনায় হতদরিদ্র ভিকটিম পরিবার চরম নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছে বলে গণমাধ্যম কর্মীদের অবগত করেছেন। এদিকে ভিকটিম পরিবারকে মামলা তুলে নিতে আসামীর ভয়ভীতি প্রদর্শনের খবর ছড়িয়ে পড়লে গ্রামবাসীর মধ্যে চরম অসন্তোষের সৃষ্টি হয়েছে। অন্যদিকে ভিকটিম পরিবার ধর্ষক প্রভাবশালী জালাল উদ্দিনের জামিন বাতিলের জন্য সংশ্লিষ্ট বিভাগের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছে।

প্রসঙ্গত, চলতি বছরের ২২ অক্টোবর মঙ্গলবার ভিকটিম বাদী হয়ে তানোর থানায় ধর্ষণ ও সালিশের নামে প্রহসণের অভিযোগে ধর্ষক জালাল উদ্দিনসহ তিনজনকে আসামী করে মামলা করেন। ওই মামলায় জালাল উদ্দিনকে আটক করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করে থানা পুলিশ। সম্প্রতি জালাল উদ্দিন জামিনে বেরিয়ে এসেই ভিকটিম পরিবারকে মামলা তুলে নিতে বিভিন্ন ভাবে ভয়ভীতি ও হুমকি প্রদর্শন শুরু করেছে বলে অভিযোগ ভিকটিম পরিবারের। তবে অভিযুক্ত জালাল উদ্দিন অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, তাকে আবারো ফাঁসানোর জন্য তার বিরুদ্ধে এসব মিথ্যা অভিযোগ করা হচ্ছে।
স্থানীয়রা জানান, তানোরের তালন্দ ইউপির আড়াদীঘি গ্রামের ছালেক উদ্দিনের পুত্র জালাল উদ্দিন একই গ্রামের প্রতিবন্ধীর স্ত্রী ও পেশায় ভিক্ষুক (২২) দুই সন্তানের জননীকে ধর্ষণ করে। শুক্রবার সন্ধ্যায় আড়াদীঘি মাঠের মতিকুড়ি নামক স্থানে গভীর নলকুপের পার্শে নিয়ে তাকে ধর্ষণ করা হয়। এদিন গোল্লাপাড়া বাজারে ভিক্ষা শেষে সন্ধ্যার পরে বাড়ি ফেরার সময় এই ঘটনা ঘটে। এদিকে পরের দিন ভিকটিম বিষয়টি ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কাশেমকে জানালে তিনি থানায় মামলা করার পরামর্শ দেয়। অন্যদিকে ভিকটিম বাদি হয়ে থানায় মামলা করতে গেলে মেম্বার রুস্তম আলী কতিপয় ইউপি যুবলীগ নেতার নির্দেশে বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে ও নায্য বিচারের আশ্বাষ দিয়ে তাকে থানা থেকে ফিরিয়ে নিয়ে এসে বিচার না করে বিভিন্ন কৌশলে কালক্ষেপণ করতে থাকে। এতে হতাশাগ্রস্ত হয়ে ভিকটিম ওই নারী জালাল উদ্দিনের বাড়ি গিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যার চেস্টা করে। এদিকে বিষয়টি বেগতিক বুঝতে পেরে এদিন দুপুরে কতিপয় ইউপি যুবলীগ নেতার নির্দেশে মেম্বার রুস্তম আলী তড়িঘড়ি বিচারের নামে প্রহসণ করেছে। এব্যাপারে তালন্দ ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কাশেম বলেন, ভিকটিম পরিবার বিষয়টি তাকে অবগত করেছিল তিনি তাদের আইনের আশ্রয় নিতে বলেছেন।