আটকে দিলেন শ্রমিকেরা বিআরটিসির বাস

Thursday, November 21st, 2019

নম্বরবিহীন বিআরটিসির দ্বিতল বাস আটকে দেন পরিবহন শ্রমিকেরা। আজ বেলা ১১টায় সৈয়দপুর কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালে। ছবি: প্রথম আলো।নম্বরবিহীন বিআরটিসির দ্বিতল বাস আটকে দেন পরিবহন শ্রমিকেরা। আজ বেলা ১১টায় সৈয়দপুর কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালে।

 

ডেস্ক নিউজঃ সড়কে বাস চলাচল বন্ধ। এ অবস্থায় গণপরিবহনের ভরসা হয়ে উঠেছিল বিআরটিসির দ্বিতল বাস। নম্বরপ্লেট না থাকায় পরিবহনশ্রমিকেরা আজ বৃহস্পতিবার সকালে দুটি দ্বিতল বাস আটকে দেন নীলফামারীর সৈয়দপুর কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালে। ঠাকুরগাঁও থেকে রংপুরের উদ্দেশে ছেড়ে আসা বাস দুটি এক ঘণ্টা পর যাত্রীসহ ফেরত পাঠানো হয়।

তিন দিন ধরে অঘোষিত পরিবহন ধর্মঘট চলছে সৈয়দপুরে। সড়ক পরিবহন আইন বাতিলের দাবিতে মাঠে ছিল বাস, ট্রাকসহ পরিবহনশ্রমিকেরা। সরকারের সঙ্গে পরিবহনের নেতাদের গতকাল বুধবার রাতে ফলপ্রসূ আলোচনার পরও আজ বৃহস্পতিবার সৈয়দপুর টার্মিনাল থেকে কোনো দূরপাল্লার বাস চলাচল করেনি। বন্ধ রয়েছে সৈয়দপুর-ঢাকা, চট্টগ্রাম, বরিশাল, খুলনা, সিলেটসহ সব গন্তব্যের বাস চলাচল। এ অবস্থায় বিচ্ছিন্নভাবে সৈয়দপুরের ওপর দিয়ে বিআরটিসির বেশ কিছু দ্বিতল বাস যাত্রীসেবা দিয়ে আসছিল। ফলে পরিবহন খাতে কিছুটা স্বস্তি ফিরে আসে। আজ বেলা ১১টার দিকে নম্বরপ্লেটবিহীন দুটি দ্বিতল বাস আটক করেন অবরোধে থাকা পরিবহনশ্রমিকেরা।

নীলফামারী জেলা বাস-মিনিবাস সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোজাম্মেল হক বলেন, ‘আমরা সামান্য একটা কাগজ ছাড়া সড়কে যানবাহন নামাতে পারি না, অথচ সরকারি গাড়ি নম্বরপ্লেট ছাড়াই চলছে। আইন সবার জন্য সমান। তাই আমরা ওই বাস দুটি আটক করেছি। পরে এসব ফেরত পাঠানো হয়েছে।’

বিআরটিসি বাস আটকের ঘটনা জানতে পেরে উপজেলা প্রশাসন ও সৈয়দপুর থানা-পুলিশ তাৎক্ষণিকভাবে ঘটনাস্থলে পৌঁছে। প্রশাসনের মধ্যস্থতায় পরে বাস দুটি ছেড়ে দেওয়া হয়। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) এস এম গোলাম কিবরিয়া।