” ঘরের মানুষ ঘর ভাঙতে চায় না” : এডভোকেট মোসাহেব উদ্দীন বখতেয়ার

Wednesday, October 9th, 2019

 

মুহাম্মদ দেলোয়ার হোসাইন (রাঙ্গুনিয়া প্রতিনিধি) যে ঘর তৈরি করে, সে জানে ঘর তৈরি করা কি কষ্টের, ঘরের মানুষ চাইবেনা ঘর ভাঙতে। ঠিক যারা প্রকৃতপক্ষে সংগঠন বা সুন্নীয়তকে ভালবাসে তারা কখনো চাইবে না, সংগঠন বা সুন্নীয়তকে দ্বি-ভাগ করতে। তিনি সকলকে সুন্নীয়তের স্বার্থে সুন্নীয়তকে দ্বি-ভাগ করার থেকে বিরত থাকার আহবান জানান।

আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাত, রাঙ্গুনিয়া উপজেলা শাখার ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান বক্তার বক্তব্যে বিশিষ্ট লেখক, গবেষক ও রাজনৈতিবিদ কেন্দ্রীয় আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের প্রেসিডিয়াম সদস্য এডভোকেট মোসাহেব উদ্দীন বখতেয়ার এ কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, সুন্নীয়তের বেশি ক্ষতি হয়েছে অতিথি পাখির মত আসা ব্যক্তিদের দ্বারা। কথা প্রসঙ্গে বলেন, দেশে বিভিন্নভাগে বিভক্ত বিশেষ করে, আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাত, বাংলাদেশ আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাত, আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাত বাংলাদেশ নামক সকল সংগঠনকে এক প্লাটফর্মে আনার জন্য আমরা সেদিন আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাত সমন্বয় কমিটি গঠন করেছি। এখন তো আর সমন্বয় কমিটি নেই, এখন মূল আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের পতাকা তলে এসে কাজ করার আহবান জানান।

মঙ্গলবার (৮ অক্টোবর) বিকালে মরিয়মনগরস্থ মাস্টার কমিউনিটি সেন্টার হল রুমে সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহবায়ক জননেতা আলহাজ্ব হাফেজ মাওলানা ছৈয়দ রুহুল আমিন আল কাদেরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, কেন্দ্রীয় আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের মহাসচিব ও সৈয়্যদবাড়ী দরবার শরীফের সাজ্জাদানাশীন পীরে তরিকত হযরতুলহাজ্ব মাওলানা ছৈয়দ মছিহুদ্দৌলা (ম.জি.আ), উদ্বোধনী বক্তব্য রাখেন, চট্টগ্রাম উত্তর জেলা ইসলামী ফ্রন্টের সাবেক সভাপতি অধ্যক্ষ মাওলানা আবু তৈয়ব।

উপজেলা ইসলামী ফ্রন্টের সাধারণ সম্পাদক জননেতা করিম উদ্দীন হাছান ও উপজেলা মধ্যম-দক্ষিণের সাবেক ছাত্রসেনার সভাপতি মাওলানা সাইফুল ইসলাম আল-কাদেরীর যৌথ সঞ্চালনায় সম্মেলনে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, চট্টগ্রাম উত্তর জেলা ইসলামী ফ্রন্টের সাধারণ সম্পাদক ইয়াছিন হায়দার, উপজেলা ইসলামী ফ্রন্টের সভাপতি জননেতা মাওলানা আজিজুল হক আল-কাদেরী, পোমরা ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আলহাজ্ব জহির আহমেদ চৌধুরী, সাবেক সভাপতি মাওলানা আবদুল খালেক, রাঙ্গুনিয়া সংসদীয় আসনের সংসদ সদস্য পদপ্রার্থী মাওলানা আবু নওশাদ নঈমী, পৌরসভা ইসলামী ফ্রন্টের সভাপতি মাওলানা আবদুর রহমান জামী প্রমুখ।

আরো উপস্থিত ছিলেন, পোমরা খাঁ মসজিদের খতিব জরিপ আলী আরমানী, উপজেলা গাউছিয়া কমিটির উত্তরের সভাপতি মাওলানা আবুল কালাম বয়ানী, সরফভাটা নেছারীয়া দরবার শরীফের সাজ্জাদানাশীন মাওলানা নাছির উদ্দীন, চট্টগ্রাম উত্তর জেলা যুবসেনার সিনিয়র সহ সভাপতি মীর মুহাম্মদ হাবিব উল্লাহ আজিম উদ্দীন আহমদ,কেন্দ্রীয় ছাত্রসেনার সাবেক সভাপতি হাফেজ শহীদুল্লাহ, রাঙ্গুনিয়া উপজেলা যুবসেনার সাধারণ সম্পাদক আলতাফ হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক মোজাহেদুল ইসলাম, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মাওলানা খায়রুল আমিন চিশতি,চট্টগ্রাম উত্তর জেলা ছাত্রসেনার সহ সভাপতি মাওলানা সাইফুল ইসলাম আল কাদেরী, রাঙ্গুনিয়া উপজেলা মধ্যম- দক্ষিণের সাবেক সভাপতি সানাউল্লাহ, এম.সোহেল তালুকদার, সভাপতি এইচ.এম.ফরিদ, সাংগঠনিক সম্পাদক রবিউল মোস্তফা রাফি, উত্তরের সাধারণ সম্পাদক আবদুল খালেক প্রমুখ।

সম্মেলনের দ্বিতীয় পর্বে প্রধান নির্বাচন কমিশন মাওলানা আলীশাহ নেছারী সকলের সর্বসম্মতিতে রাঙ্গুনিয়া উপজেলা মধ্যম-দক্ষণ, উত্তর ও পৌরসভাকে তিনটিভাগে বিভক্ত করে এ কমিটি ঘোষণা করা হয়। উপজেলা মধ্যম-দক্ষিণে মাওলানা হাফেজ হাফেজ রুহুল আমিনকে সভাপতি, মাওলানা মারফতুন নুরকে সাধারণ সম্পাদক ও মাওলানা সাইফুল ইসলামকে সাংগঠনিক সম্পাদক, উত্তরের মাওলানা আবুল কালাম বয়ানীকে সভাপতি, মাওলানা আজিজুল হক আলকাদেরীকে সাধারণ সম্পাদক ও মাহাবুব ইলাহীকে সাংগঠনিক সম্পাদক এবং পৌরসভার মাওলানা আবদুর রহমান জামিকে সভাপতি, মাওলানা নাছির উদ্দীন নাহিদকে সাধারণ সম্পাদক ও আবদুস ছবুরকে সাংগঠনিক সম্পাদক নিবাচিত করে তিনটি কমিটি ঘোষণা করা হয়।