জগন্নাথপুরে জমে উঠেছে নির্বাচনী আমেজ

Wednesday, October 2nd, 2019

জগন্নাথপুর (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি: সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার মিরপুর ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনকে কেন্দ্র করে উপজেলার সর্বত্র জমে উঠেছে নির্বাচনী আমেজ। আগামী ১৪ অক্টোবর নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। সময় যতো ঘনিয়ে আসছে, ততোই বাড়ছে প্রার্থী ও সমর্থকদের দৌড়ঝাপ। নিজেদের বিজয় নিশ্চিতের লক্ষে সর্বশক্তি নিয়ে মাঠে ঝাপিয়ে পড়েছেন প্রার্থীরা। প্রতিদিন সকাল থেকে রাত পর্যন্ত চলছে গণ-সংযোগ ও ভোট প্রার্থনা। ভোটারদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্রার্থী ও তাদের সমর্থকরা ভোট প্রার্থনা করছেন। মিরপুর ইউনিয়নে নির্বাচন হলেও উপজেলার বিভিন্ন অঞ্চলের লোকজন তাদের পছন্দের প্রার্থীর পক্ষে কাজ করছেন। অনেকে আবার যুক্তরাজ্য সহ বিভিন্ন দেশ থেকে তাদের পছন্দের প্রার্থীর পক্ষে কাজ করতে ও ভোট দিতে দেশে থাকা আত্মীয়-স্বজনকে বলে দিচ্ছেন। সব মিলিয়ে জমে উঠেছে নির্বাচনী আমেজ।
এদিকে-ভোটাররাও এবার অনেক সচেতন। তারা কষতে শুরু করেছেন ভোটের হিসাব-নিকাশ। যাকে দিয়ে ইউনিয়নের কাঙ্খিত উন্নয়ন হবে শুধু মাত্র সেই যোগ্য প্রার্থীকে বুঝে শোনে ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। ২ অক্টোবর বুধবার ভোটারদের মধ্যে অনেকে এভাবেই সাদামাটা ভাবে তাদের মতামত ব্যক্ত করেছেন।
নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগ মনোনীত আবদুল কাদির (নৌকা) ও জাতীয় পার্টি আব্বাছ মিয়া (লাঙ্গল)। স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মাহবুবুল হক শেরিন (আনারস), সাহাব আলী (টেলিফোন), শওকত আহমদ (চশমা) ও আতাউর রহমান (মোটরসাইকেল) প্রতীক নিয়ে ভোট যুদ্ধে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন।
এছাড়া সংরক্ষিত ১, ২, ৩ নং ওয়ার্ড থেকে নারী সদস্য পদে রাবিয়া বেগম (তালগাছ), হাসনা হেনা (হেলিকপ্টার) ও রাহেলা আক্তার (মাইক)। ৪, ৫, ৬ নং ওয়ার্ড থেকে সরিফুল বেগম (সূর্য্যমুখি ফুল), নাজমিন আক্তার মিনা (তালগাছ), মোহন মালা (মাইক) ও সাবেক ইউপি সদস্য আকজান বিবি (কলম)। ৭, ৮, ৯ নং ওয়ার্ড থেকে পারুল রাণী পাল (সূর্য্যমুখি ফুল), ফুল বেগম (তালগাছ), ফিরোজা বেগম (বই) ও হাওয়ারুন্নেছা (মাইক)।
সাধারণ ১নং ওয়ার্ড থেকে শফিক আলী (তালা), লিটন আহমদ (আপেল), ছইল মিয়া সুহেল (ঘুড়ি), আবদুল আহাদ (ভ্যানগাড়ি), খলিল উদ্দিন (ফুটবল), হাবিব খান (টর্চ লাইট), জাবেদ খান (বৈদ্যুতিক পাখা) ও সাজর আলী (টিউবওয়েল)। ২নং ওয়ার্ড থেকে কমর উদ্দিন (তালা), সাহাব উদ্দিন (টিউবওয়েল), মাহবুব হোসেন (ঘুড়ি) ও সেলিম হোসেন (ফুটবল)। ৩নং ওয়ার্ড থেকে হোসেন রাসেল (ফুটবল), আওলাদ আলী (মোরগ) ও মাহমুদ মিয়া (টিউবওয়েল)। ৪নং ওয়ার্ড থেকে বর্তমান সদস্য রফা মিয়া (ফুটবল), হাফিজুর রহমান খালেদ (ঘুড়ি), রুহেল মিয়া (টিউবওয়েল), আসাদুজ্জামান আনছার (বৈদ্যুতিক পাখা) হোসেন মিয়া (আপেল) ও আশিকুর রহমান (তালা)। ৫নং ওয়ার্ড থেকে সাহেদ মিয়া (টিউবওয়েল), আজির উদ্দিন খান (তালা) ও আবদুস শহীদ (ফুটবল)। ৬নং ওয়ার্ড থেকে মুজাম্মিল খান (মোরগ), নজির আলী (ফুটবল) ও ইমরান হোসেন (তালা)। ৭নং ওয়ার্ড থেকে আনোয়ার আলী (তালা), আবদুল ওয়াহাব (ভ্যানগাড়ি), আবদুল কদ্দুছ (বৈদ্যুতিক পাখা), হান্নান মিয়া (ঘুড়ি), সেবুল আহমদ (ফুটবল), রফিক উদ্দিন (টিউবওয়েল) ও মাহমুদ আলী (মোরগ)। ৮নং ওয়ার্ড থেকে ফয়জুর রহমান (ফুটবল), আবুল হোসেন (টিউবওয়েল), আবদুল আলিম (মোরগ), ফরহাদ আহমদ (তালা), মোস্তাক আহমদ (আপেল), ফয়জুল হক (ঘুড়ি) ও আলী হোসেন (বৈদ্যুতিক পাখা)। ৯নং ওয়ার্ড থেকে নেওয়ার হোসেন (টিউবওয়েল), মইনুল গণি (আপেল), নানু মিয়া (তালা), বদরুল গণি মোরগ), সাজাদ খান (ফুটবল) ও মোস্তফা মিয়া (ভ্যানগাড়ি) প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন।