‘ভাড়াটে বাহিনী’ হিসেবে মার্কিন সেনাদের ব্যবহার করছে ‘বি টিম’

Sunday, September 22nd, 2019
মার্কিন সেনাদের 'ভাড়াটে বাহিনী' হিসেবে ব্যবহার করছে 'বি টিম'

ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ জাওয়াদ জারিফ

ডেস্ক নিউজঃ মার্কিন সেনাবাহিনীকে ভাড়াটে বাহিনী হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে। আর এই কাজ করছে ‘বি টিম’। ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ জাওয়াদ জারিফ এ মন্তব্য করেছেন।

সৌদি আরবের দুটি তেল স্থাপনায় ইয়েমেনি সেনাবাহিনীর হামলা দায় ইরানের ওপর চাপিয়ে দিয়ে ওয়াশিংটনকে তেহরানের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে উসকানি দেয়ার যে চেষ্টা চলছে সে সম্পর্কে মন্তব্য করতে গিয়ে একথা বলেন তিনি।

ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী  বলেছেন, ‘বি টিম’ মনে করছে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে সহজে বশ করা যায় এবং তাকে মিথ্যা প্ররোচনা দিয়ে যুদ্ধের দিকে ঠেলে দেয়া যায়।

প্রসঙ্গত, ট্রাম্প শুক্রবার মধ্যপ্রাচ্যে আরো বেশি সেনা পাঠানোর প্রস্তাবে সম্মতি দিয়েছেন বলে মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী মার্ক এসপার জানিয়েছেন।

ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জারিফ বর্তমানে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৪তম বার্ষিক অধিবেশনে যোগ দিতে নিউ ইয়র্ক সফরে রয়েছেন।

নিজের অফিসিয়াল টুইটার পেজে সাবেক মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসনের সাম্প্রতিক এক বক্তৃতার ছবি প্রকাশ করে তিনি লিখেছেন, বি টিমের এক সদস্যকে বহিষ্কার করা সত্ত্বেও তারা এখনো তাদের কর্মসূচি আগের মতো চালিয়ে যাচ্ছে।

টিলারসন শুক্রবার হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে দেয়া এক বক্তৃতায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে নিজের দায়িত্ব পালনের সময়কার স্মৃতি তুলে ধরে বলেন, ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে নিয়ে খেলা করতেন। তিনি ট্রাম্পের সামনে মিথ্যা তথ্য উপস্থাপন করে তাকে ভুলপথে পরিচালিত করার চেষ্টা করতেন।

ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী চলতি বছরের গোড়ার দিকে মার্কিন নিউজ চ্যানেল ফক্স নিউজকে দেয়া সাক্ষাৎকারে ইংরেজি ‘বি’ আদ্যাক্ষরের চার ব্যক্তির নাম উল্লেখ করে তাদেরকে বি টিম বলে অভিহিত করেন। তিনি বলেন, এই ‘বি টিম’ র সদস্যরা আমেরিকাকে ইরানের বিরুদ্ধে সামরিক সংঘাতে জড়িয়ে ফেলতে চান।  জারিফের ভাষায় টিম-বি’র ওই চার সদস্য হলেন, সদস্য বহিস্কৃত মার্কিন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টন, ইহুদিবাদী ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু, সৌদি যুবরাজ বিন সালমান এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতের যুবরাজ বিন জায়েদ। জারিফ বলেন, বি টেমের প্রচেষ্টা সত্ত্বেও মার্কিন প্রেসিডেন্ট ইরানের বিরুদ্ধে যুদ্ধে জড়াবেন বলে তিনি মনে করেন না।

সূত্র : পার্সটুডে