নানি হওয়ার পার্টি রাভিনার

Monday, September 9th, 2019

পূজার ইনস্টাগ্রাম থেকে নেওয়া পার্টির ছবি।পূজার ইনস্টাগ্রাম থেকে নেওয়া পার্টির ছবি।রাভিনা ট্যান্ডন।

ডেস্ক নিউজঃ এই নাম শুনলেই ভেসে আসে ১৯৯০–এর দশকের সেই ‘টিপ টিপ বরষা পানি’ গানটি। এই গানে বৃষ্টিতে হলুদ রঙের শাড়িতে তাঁর নাচ এখনো অনেক দর্শকের চোখে লেগে আছে। বলিউডে তাঁর অবদান মনে রাখার মতো। বর্তমানে তিনি একটি নাচের রিয়েলিটি শোর বিচারকের দায়িত্ব পালন করছেন। তাঁকে সর্বশেষ বড় পর্দায় দেখা গেছে এ বছরই, তবে একটি অতিথি চরিত্রে। ‘খানদানি সাফাখানা’ ছবির ‘শহর কি লাড়কি’ গানে।

এর আগেও ১৯৯৬ সালে মূল গানটিতে দেখা গিয়েছিল রাভিনা ট্যান্ডন আর সুনীল শেঠিকে। জীবনকে উদযাপন করার মতো অনেক ঘটনাই আছে তাঁর জীবনবৃত্তান্তে। একজন সফল বলিউড তারকা হওয়ার পরও তাঁর মতে, জীবনের সেরা চাকরি মায়ের দায়িত্ব পালন করা। সেই সেরা চাকরিতেও তিনি সফল। আর মায়ের পর এবার তিনি নানি হতে চলেছেন।

পূজার ইনস্টাগ্রাম থেকে নেওয়া পার্টির ছবি।পূজার ইনস্টাগ্রাম থেকে নেওয়া পার্টির ছবি।

১৯৯৫ সালে রাভিনার ক্যারিয়ারের বৃহস্পতি যখন তুঙ্গে, তখন দুই সন্তান দত্তক নেন। তখন পূজার বয়স ছিল ১১ আর ছায়ার ৮। রাভিনা যখন তাঁদের দত্তক নেন, তখন ‘একা মা’ (সিঙ্গেল মাদার) সম্বন্ধে কারও পরিষ্কার ধারণা ছিল না। ৯ বছর পর ২০০৪ সালে চলচ্চিত্র পরিবেশক অনিল ঠান্ডানিকে বিয়ে করেন রাভিনা। সেই ঘরেও রাশা (১৪) ও রণবীর (১১) নামে দুই সন্তান রয়েছে। আর সেই ছায়া এখন ৩২–এ দাঁড়িয়ে। তাঁর প্রথমবার মা হওয়া উপলক্ষে রাভিনা ট্যান্ডন দিয়েছিলেন ‘বেবি শাওয়ার পার্টি’।

সেই পার্টির কয়েকটি ছবি ভাইরাল হয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। আর এই পারিবারিক পার্টিতে কেবল কয়েকজন আত্মীয় আর কাছের বন্ধুরাই উপস্থিত ছিলেন। তাঁদেরই একজন পূজা। সে নিজের ইনস্টাগ্রামে রাভিনা ট্যান্ডনের ওই পার্টির একটি ছবি পোস্ট করে লিখেছে, ‘রাভিনা নানি হতে যাচ্ছে। চিয়ার্স। মা হওয়া সহজ কথা নয়। কিন্তু সত্যিকারের সেই ধৈর্য, ভালোবাসা আর গভীর মমতা নিয়ে মা হয়েছেন রাভিনা। এত যত্ন করে, পরিপূর্ণভাবে নিজের দত্তক নেওয়া সন্তানের মা হতে চলার অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে আমি আপ্লুত। রাভিনা, আমি তোমাকে নিয়ে সত্যিই গর্বিত।’

পূজার ইনস্টাগ্রাম থেকে নেওয়া পার্টির ছবি।পূজার ইনস্টাগ্রাম থেকে নেওয়া পার্টির ছবি।

এর আগেও রাভিনা একাধিকবার অসহায় নারীর পাশে দাঁড়িয়েছেন। তাঁদের নিজের পায়ে দাঁড়াতে সহযোগিতা করেছেন। একবার এক বাড়িওয়ালা কোনো পূর্বঘোষণা ছাড়াই ৩১ জন মেয়েকে বাড়ি থেকে বের করে দেন। তা জানার পরই রাভিনা তাঁদের সবাইকে নিজের বাড়িতে আশ্রয় দেন। তাঁরা এখন বিভিন্ন ক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠিত। রাভিনাকে নিয়মিত চিঠি লেখেন সেই মেয়েরা। আর রাভিনার কাছে তা নিঃশর্ত ভালোবাসা।

কিছুদিন আগে রাভিনা ট্যান্ডন আলোচনায় এসেছিলেন জনপ্রিয় নাচের রিয়েলিটি শো নাচ বালিয়ের নবম সিজনে নেচে। ‘সাহো’খ্যাত জনপ্রিয় দক্ষিণী তারকা প্রভাসের সঙ্গে। তাঁর আইকনিক ‘টিপ টিপ বরষা’ গানে। আর প্রভাস যে রাভিনার কত বড় ভক্ত, তা কে না জানে!