বাড়ির পথে হাবিপ্রবি’র শিক্ষার্থীরা

Friday, August 9th, 2019
আজিজুর রহমান, হাবিপ্রবি প্রতিনিধিঃ
ঈদ মানেই আনন্দ আর মা-বাবা’র সাথে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করা অবশ্যই আর সব আনন্দ থেকে আলাদা।এই আনন্দের সঙ্গে আর কোনো আনন্দের তুলনা চলে না। এই দিনটির জন্য সারা বছর প্রতীক্ষা করতে হয়।ঈদের ছুটিতে প্রিয়জনের কাছে ফিরে যেতে যত রকমের ঝুঁকি আছে সবই নিতে প্রস্তুত বাড়িমুখী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।
বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার পর থেকে ক্লাস, লাইব্রেরি, পরীক্ষা, প্রেজেন্টেশন,অ্যাসাইনমেন্ট ও ভাইভা নিয়েই পার হয়ে যায় বছরের দিনগুলো। কিছু বুঝে ওঠার আগেই জীবনপঞ্জিকা থেকে একটি একটি করে দিন হারিয়ে যায়। ছুটে চলে এই ব্যস্ত নগরে পড়াশোনা আর নোট নিয়ে দৌড়ঝাঁপ। এভাবে পথ চলতে চলতে হাপিয়ে ওঠে পুরো জীবন। তখন মন খুঁজে কিছু দিন ছুটি,আত্মীয়দের সাথে সময় কাটানোর মতো নানা পন্থা। কিন্তু কি আর করার সেই সুযোগ তো আর সবসময় আসে না। বা চাইলেও সবার ব্যস্ততার কারণে তা আর হয়ে ওঠে না।
কিন্তু ঈদ আসলেই মন নেচে উঠে, ভরে উঠে আনন্দে।ঈদের ছুটির জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করে প্রত্যেক শিক্ষার্থী।ঈদকে ঘিরে বেশ কিছুদিন আগে থেকেই শুরু হয় নানা চিন্তাভাবনা, জল্পনা-কল্পনা। কে, কীভাবে, কোথায়, কেমন করে ঈদ কাটাবে ইত্যাদি নিয়ে ক্যাম্পাসে বন্ধুদের মধ্যে শুরু হয় আলাপ-আলোচনা।শুরু হয় মিষ্টি তর্ক-বিতর্ক।হবেই-বা না কেন? বছরের এ দিনটি তো আর সচরাচর আসে না। এ দিনটি অন্যান্য কোনো গতানুগতিক দিনের মতো নয়, এ দিনটি আসে আনন্দ আর উচ্ছ্বাসের বারতা নিয়ে। তাই তো ঈদের ছুটি এলেই শিক্ষার্থীদের মধ্যে দেখা দেয় অস্থিরতা, অজানা এক উত্তেজনা।
ঈদ যত কাছে আসে, এ অনুভূতির মাত্রাগুলো ততই বাড়তে থাকে। প্রস্তুতি নেয় বাড়ি ফেরার। মায়ের নিষ্পাপ শান্তিময় আঁচলের নিচে সুখ খুঁজতে ছোটে সবাই। ছোটে ছোট্ট ভাই ও বোনটির হাজারো আবদার, খুটিনাটি ঝগড়া করতে, শাসন আর ভালোবাসায় প্রতিটি মুহূর্ত পার করতে বাবার কঠোর আদেশ-উপদেশ এবং ভালোবাসা পেতে।
বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে আসা অনেক শিক্ষার্থীই পরিবার ছেড়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের হল,পার্শ্ববর্তী মেস ও শহরের আবাসিক মেসে থাকেন।ঈদ সামনে আসলেই বাড়ি যাওয়ার অপেক্ষায় কাটে দিন,প্রিয়জনের সাথে ঈদ করতে শিক্ষার্থীরা নেন নানা প্রস্তুতি।
হাজারো সোনালি স্বপ্ন নিয়ে আসা চাঁপাইনবাবগঞ্জের ছেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মোঃ সুমন আলী বলেন,  মা-বাবা-বোনকে ছেড়ে ঈদ উদযাপনের কথা ভাবতেই পারি না।তাই ঈদে বাড়ি যাবার কথা ভাবলেই মনের ভেতর খুশির আমেজ ছড়িয়ে পড়ে। বাড়ি ফেরার টান থাকে, থাকে উৎসাহ আর আনন্দ।
বাস্তববাদী স্বপ্নচারী নীলফামারি থেকে আসা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মোঃ কামরুজ্জামান বলেন, গত তিন বছর ধরে ঈদের আনন্দ পরিবারের সাথে ভাগাভাগি করতে যাই।রেল,বাস,অটো ও ভ্যান সবই ব্যবহার করেই শতকষ্টে উপেক্ষা করে বাসা যাওয়ার পর মা-বাবার মুখ দেখলেই আনন্দে ভরে উঠে এ মন।