৯ লাখের ক্যামেরার লেন্স সাড়ে ৬ হাজারে আমাজনে!

Monday, July 22nd, 2019

আমাজনে ৯ লাখ রুপির ক্যামেরা এক আলোকচিত্রী পেয়েছেন সাড়ে ৬ হাজারে। ফাইল ছবিআমাজনে ৯ লাখ রুপির ক্যামেরা এক আলোকচিত্রী পেয়েছেন সাড়ে ৬ হাজারে। ফাইল ছবি

 

ডেস্ক নিউজঃ এ দোকান ও দোকান ঘুরে ঘুরে কেনার ঝক্কি-ঝামেলাও অনেক। তাই মানুষ এখন ঘরে বসেই অনলাইনে কেনাকাটা করতে পছন্দ করেন। এতে বেঁচে যায় সময়ও। ঘরে বসে কেনাকাটা এখন ট্রেন্ড হয়ে গেছে। আবার অনেক পণ্য ছাড়ে মেলায় (হ্রাসকৃত মূল্যে) অনলাইনে কেনাকাটা দিন দিন বাড়ছে। অনেকে আবার ছাড়ের আশায় অনলাইনে কেনাকাটায় বিশেষ দিনের অপেক্ষায় থাকেন। তবে ভারতের এক আলোকচিত্রী ছাড়ের মধ্যে ৯ লাখ রুপি দামের ক্যামেরা পেয়েছেন সাড়ে ৬ হাজারে।

যুক্তরাষ্ট্রের ই-কমার্স সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান আমাজন ভারতসহ বিশ্বের কয়েকটি দেশে এ মাসের ১৫ ও ১৬ তারিখে মেগা ছাড় দিয়েছিল। স্বাভাবিকভাবেই বিভিন্ন সামগ্রীর ওপর আকর্ষণীয় ছাড় দিয়েছিল প্রতিষ্ঠানটি। অন্য অনেকের মতোই কেনাকাটার জন্য আমাজনে ঢুঁ মারেন ভারতের এক আলোকচিত্রী। মূল্যছাড়ের হিড়িক দেখে তিনি হতবাক। তিনি দেখতে পান ৯ লাখ রুপির একটি ক্যামেরা বিক্রি হচ্ছে মাত্র সাড়ে ৬ হাজারে। ব্যস, দ্রুত তিনি বুক করে ফেলেন ক্যাননের ক্যামেরাটি। তবে অর্ডার দেওয়ার পরও তিনি যেন নিজেকে বিশ্বাস করতে পারছিলেন না। তাঁর মনে হয়েছিল, পানির দামে পণ্য আসলে কি তিনি পাবেন। তবে ক্যামেরা হাতে পেয়ে আমাজনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জেফ বেজোসকে ধন্যবাদ জানান তিনি।

ক্যাননের ইএফ ৮০০ এমএম লেন্সটি কম দামে পেয়েছেন এক আলোকচিত্রী। ছবি: সংগৃহীতক্যাননের ইএফ ৮০০ এমএম লেন্সটি কম দামে পেয়েছেন এক আলোকচিত্রী। ছবি: সংগৃহীত

ক্যাননের ইএফ ৮০০ এমএম ক্যামেরাটি আমাজনে বুক দেওয়ার পরই ওই আলোকচিত্রী সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সবাইকে জানান। ওই আলোকচিত্রীর টুইট দেখে অনেকেই আমাজনে ক্যামেরা কিনতে ঢুঁ মারেন। অনেক কমে বিভিন্ন ক্যামেরা ও অন্যান্য জিনিসও কেনেন। কেনার পর টুইট করে অনেকে নিজেদের অভিজ্ঞতা অন্যদের সঙ্গে ভাগ করে নেন।

বুক দেওয়ার পরই একজন বলেন, ‘আমি অনেক ছাড়ে একটি ক্যামেরা বুক দিয়েছি, বিশ্বাস করতে পারছি না। ক্যামেরা পাব তো?’ অপর একজন লেখেন, ‘সনি আলফা এ৬০০০ ও ১৬ এমএম লেন্স বুক করলাম মাত্র সাড়ে ৬ হাজার রুপিতে। এর বাজারমূল্য প্রায় ৩৮ হাজার রুপি।’

তবে অনেকেই ভেবেছিলেন হয়তো আমাজন এসব ফরমাশ বাতিল করে দেবে। কিন্তু আমেরিকাভিত্তিক পণ্য সরবরাহকারী সংস্থা আমাজন ডটকম তা করেনি। ইতিমধ্যেই অনেকেই ফরমাশ অনুযায়ী পণ্যসামগ্রী হাতে পেয়েছেন। আসলে আমাজন ভুলে কিছু পণ্যে এত ছাড় দিয়েছে। তবে ভুল করে হলেও তারা ফরমাশ অনুযায়ী পণ্য ক্রেতাকে দিয়েছে। তথ্যসূত্র: টাইমস নাউ ও হিন্দুস্তান টাইমস