তানোরবাসি আধূনিক স্বাস্থ্য সেবা পেতে শুরু করেছে

Sunday, June 16th, 2019


আলিফ হোসেন,তানোর প্রতিনিধি:
রাজশাহীর তানোরে স্থানীয় সাংসদ, রাজশাহী জেলা আওয়ামী
লীগের সভাপতি এবং সাবেক শিল্প প্রতিমন্ত্রী আলহাজ্ব ওমর
ফারুক চৌধূরীর উদ্যোগ ও দিকনির্দেশনায় উপজেলার দুর্গম,
প্রত্যন্ত পল্লী ও গ্রামাঞ্চলের সাধারণ মানুষের দৌড় গোড়ায়
আধূনিক স্বাস্থ্য সেবা পৌচ্ছে দিতে বিভিন্ন প্রকল্পের কাজ
শুরু করা হয়েঠিল। জানা গেছে, উপজেলার পশ্চাদপদ এই জনপদের
প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলের মানুষের দীর্ঘদিনের দাবী ছিল
ইউনিয়ন পর্যায়ে স্বাস্থ্য কেন্দ্র নির্মাণের। এসব এলাকার
মানুষ দীর্ঘদিন আ্ধসঢ়;ধূনিক স্বাস্থ্য সেবা থেকে বঞ্চিত ছিল
তাদের মধ্যে আধূনিক স্বাস্থ ্যসেবা পৌচ্ছে দেয়ার
দীর্ঘদিনের দাবী ছিল এই অঞ্চলের প্রতিটি মানুষের। স্থানীয়
সাংসদের প্রচষ্টায় মহাজোট তথা আওয়ামী লীগ সরকার
উপজেলার দুর্হম, প্রত্যন্ত পল্লী ও গ্রামাঞ্চলের এসব মানুষের
আধূনিক স্বাস্থ্য সেবা সুনিশ্চিত করতে (সিএমএমইউ)-এর
মাধ্যমে বিভিন্ন প্রকল্প গ্রহণ করে যা চলমান রয়েছে। এসব
প্রকল্পের মধ্যে রয়েছে কমিউনিটি ক্লিনিক সংস্কার,
বিভিন্ন ইউনিয়নে নতুন স্বাস্থ্য উপকেন্দ্র নির্মাণ ও
সংস্কার। এসব প্রকল্প গ্রহণ ও বাস্তবায়নের ফলে প্রত্যন্ত
গ্রামাঞ্চলে বসবাসরত অধিবাসীদের জীবনে নতুন অনুসঙ্গ
হয়ে এসছে নিরাপদ স্বাস্থ্য ও আধূনিক সু-চিকিৎসা।
বিগত দিনে এসব এলাকায় চিকিৎসা সংকট প্রবল হয়ে
উঠেছিল। বিভিন্ন ইউনিয়নে নতুন স্বাস্থ্য উপকেন্দ্র স্থাপন ও
সংস্কার করায় এই এলাকার মানুষের চিকিৎসা সংকট
অকেটাই দুর হয়েছে ও আধূনিক চিকিৎসা সেবা পেতে শুরু
করেছে।
সংশ্লিষ্ট সুত্রে জানা গেছে, বিগত ২০০৯-১০ অর্থবছরে
(সিএমএমইউ) অধিদফতরের আওতায় তানোরের বিভিন্ন
এলাকায় ৩টি স্বাস্থ্য উপকেন্দ্র নির্মাণ, ৪টি সংস্কার ১৯টি
কমিউনিটি ক্লিনিক সংস্কার করা হয়েছে। এগুলো হলো
প্রায় ৮৫ লাখ টাকা ব্যয়ে সরঞ্জাই ইউনিয়নে নতুন স্বাস্থ্য
উপকেন্দ্র নির্মাণ, প্রায় ৮৫ লাখ টাকা ব্যয়ে বাধাইড়

ইউনিয়নে নতুন উপ স্বাস্থ্যকেন্দ্র নির্মাণ ও চাঁন্দুড়িয়া
ইউনিয়নে প্রায় ৮৫ লাখ টাকা ব্যয়ে ইউনিয়নে নতুন স্বাস্থ্য
উপকেন্দ্র নির্মাণ। অন্যদিকে প্রায় ২ লাখ টাকা ব্যয়ে কলমা
ইউপি উপ-স্বাস্থ্যকেন্দ্র সংস্কার, সমপরিমাণ টাকা ব্যয়ে
মুন্ডুমালা উপস্বাস্থ্যকেন্দ্র ও পাকচাঁদপুর ইউপি
উপস্বাস্থ্যকেন্দ্র সংস্কার এবং প্রায় ১০ লাখ টাকা ব্যয়ে ১৯ টি
কমিউনিটি ক্লিনিক সংস্কার করা হয়েছে। এদিকে প্রায়
সাড়ে তিন কোটি টাকা ব্যয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স-এর
নির্মাণ কাজ চলমান রয়েছে। এসব প্রকল্প গ্রহণ ও বাস্তবায়ন
করায় এই এলাকার মানুষের চিকিৎসা সংকট দুর হয়েছে
আধূনিক চিকিৎসা সেবা পেতে শুরু করেছে।
এ ব্যাপারে স্থানীয় সাংসদের প্রতিনিধি, উপজেলা যুবলীগের
সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান লুৎফর হায়দার রশিদ (ময়না) বলেন,
মহাজোট তথা আওয়ামী লীগ সরকার তৃণমুল পর্যায়ে
সাধারণ জনগণের আধূনিক স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করতে
বিভিন্ন উদ্দ্যোগ নিয়েছে। এরই অংশ হিসেবে প্রতিটি
উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সকে ৩১ শয্যা থেকে ৫০ শয্যায় উন্নীত
করণের কাজ এগিয়ে চলছে। এছাড়াও ইউনিয়ন পর্যায়ের
উপস্বাস্থ্যকেন্দ্র ও কমিউনিটি ক্লিনিকগুলো দ্রুত সংস্কার ও
পর্যায়ক্রমে চালু করা হচ্ছে।