ভাসছেন ৬৪ বাংলাদেশি তিউনিসিয়ার জলসীমায়

Wednesday, June 12th, 2019

প্রতিবেশী দেশ লিবিয়ার পশ্চিম তীর আফ্রিকার অভিবাসনপ্রত্যাশীরা ইউরোপে প্রবেশের জন্য ব্যবহার করে। ফাইল ছবিপ্রতিবেশী দেশ লিবিয়ার পশ্চিম তীর আফ্রিকার অভিবাসনপ্রত্যাশীরা ইউরোপে প্রবেশের জন্য ব্যবহার করে। ফাইল ছবি

 

ডেস্ক নিউজঃ ৭৫ জন অভিবাসনপ্রত্যাশী ১২ দিন ধরে তিউনিসিয়ার জলসীমায় একটি উদ্ধারকারী নৌকায় ভাসছেন। আটকে পড়া এসব মানুষের মধ্যে ৬৪ জনই বাংলাদেশি। তিউনিসীয় কর্তৃপক্ষ নৌকাটিকে তীরে ভিড়তে দিচ্ছে না বলে রেড ক্রিসেন্ট জানিয়েছে।

আজ বুধবার রেড ক্রিসেন্টকে উদ্ধৃত করে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, উপকূলীয় শহর জার্জিস থেকে ২৫ কিলোমিটার দূরে নৌকাটি অবস্থান করছে।

অভিবাসনপ্রত্যাশীদের দলটি লিবিয়া থেকে যাত্রা শুরু করে। তাঁদের মধ্যে ৬৪ জন বাংলাদেশি রয়েছেন। অন্যরা মরক্কো, সুদান ও মিসরের নাগরিক। তবে এই মানুষদের বিষয়ে এখনো সব তথ্য জানা যায়নি বলে জানিয়েছে রেড ক্রিসেন্ট।

তিউনিসিয়া সরকারের একটি সূত্র রয়টার্সকে জানায়, এই অভিবাসনপ্রত্যাশীরা খাবার ও চিকিৎসাসেবা প্রত্যাখ্যান করে তাঁদের ইউরোপে ঢুকতে দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন। ইউরোপের উদ্দেশেই তাঁরা এই যাত্রা শুরু করেন।

রেড ক্রিসেন্টের কর্মকর্তা মঙ্গি সেলিম বলেন, ‘নৌকাটিতে থাকা অভিবাসনপ্রত্যাশীদের চিকিৎসাসেবা দেওয়ার জন্য একটি চিকিৎসক দল গিয়েছিল। তবে তাঁরা এই সেবা প্রত্যাখ্যান করেছেন।’

প্রতিবেশী দেশ লিবিয়ার পশ্চিম তীর আফ্রিকান অভিবাসীরা ইউরোপে প্রবেশের জন্য ব্যবহার করেন। মানব পাচারকারীদের মোটা অর্থ দিয়ে ইউরোপের উদ্দেশে নৌকায় করে যাত্রা করেন তাঁরা। জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থা ইউএনএইচসিআর জানিয়েছে, ২০১৯ সালের প্রথম চার মাসে এই পথে ১৬৪ জনের মৃত্যু হয়েছে।