ঠাকুরগাঁও-২ আসনের বিএনপি'র মনোনীত প্রার্থী হলে আরো অনেক উন্নয়ন করবেন – চিকিৎসক সালাম ,

Monday, November 19th, 2018
মোঃ মজিবর রহমান শেখ ঠাকুরগাঁও জেলা  প্রতিনিধি,
  • বাংলাদেশের সীমান্তবর্তী  ঠাকুরগাঁও জেলার প্রত্যন্ত বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা। রাজধানী ঢাকা থেকে সাড়ে ৫শ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে পৌঁছাতে হয় বালিয়াডাঙ্গী উপজেলায়। এখানকার অধিকাংশ মানুষের বসবাস দারিদ্রসীমার নিচে। কৃষি নির্ভর এ এলাকার মানুষ সঠিক শিক্ষা ও চিকিৎসাসহ অনেক কিছু থেকে বঞ্চিত। তবে দীর্ঘদিন ধরে এলাকার বঞ্চিত মানুুষগুলোকে আর্থিকভাবে স্বাবলম্বী ও চিকিৎসা সহায়তা দিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন দেশ বরেণ্য চিকিসৎক আব্দুস সালাম। পেশাজীবী সংগঠন ‘ডক্টর অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ড্যাব) এর কেন্দ্রীয় কমিটি সহ-সভাপতি তিনি।
এলাকার মানুষকে নিয়ে কাজ করার স্বপ্ন থেকে এবার ঠাকুরগাঁও-২ আসনে (বালিয়াডাঙ্গী-হরিপুর ও রাণীশংকৈল আশিংক) বিএনপি থেকে নির্বাচনে অংশ নিতে মনোনয়নপত্র কিনে জমা দিয়েছেন ডা. আব্দুস সালাম। এলাকার অসংখ্য মানুষ চায় আব্দুস সালাম সংসদ সদস্য নির্বাচিত হলে বদলে যাবে দেশের প্রত্যন্ত বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার প্রেক্ষাপট।
মনোনয়ন প্রত্যাশী ডা. আব্দুস সালাম , সাংবাদিক মজিবর রহমান শেখ কে  জানান, ঠাকুরগাঁও-২ আসনটি ভারতীয় সীমান্ত ঘেঁষা। স্বাধীনতার পর থেকেই তেমন কোনো আর্থসামাজিক উন্নয়ন ঘটেনি এখানে। এখানকার বেশিভাগ মানুষ দারিদ্রসীমার নিচে বসবাস করেন। তিনি বলেন, আমার প্রথম ও প্রধান লক্ষ্য হবে এলাকার মানুষের অর্থনৈতিক মুক্তির জন্য কাজ করা। এলাকার কিছু ক্ষুদ্র শিল্প কারখানা ও ভালো মানের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলা। দীর্ঘ ৩০ বছর ধরে এ আসনটি দখলে রয়েছে আওয়ামী লীগের বর্তমান সংসদ সদস্য আলহাজ্ব দবিরুল ইসলাম এমপির কাছে। কিন্তু, এলাকায় তিনি কোনো ভালো শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, মানুষের কর্মসংস্থানের জন্য কিছুই করতে পারেননি।
এলাকার মানুষ পরিবর্তন চায়। আমাকে এ আসনে বিএনপি থেকে মনোনীত করলে সাধারণ মানুষ বিজয়ী করে আনবে বলে প্রত্যাশা ডাক্তার সালামের।
উল্লেখ্য, ডা. আব্দুস সালামের জন্ম ও বেড়ে উঠা বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার ৪নং বড় পলাশবাড়ী ইউনিয়নে। ছোট বেলা থেকেই তিনি মেধাবী ছাত্র ছিলেন। তিনি ১৯৭২ সালে নেকমরদ আলিমুদ্দীন সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে সর্বোচ্চ নম্বর নিয়ে এসএসসি পাস করেন। পরে রংপুর কারমাইকেল কলেজ থেকে এইচএসসি ও রংপুর মেডিকেল কলেজ থেকে এমবিবিএস পাস করেন। এরপর ঢাকা, রংপুরসহ বিভিন্ন মেডিকেল কলেজে চাকরি করেন তিনি।
তিনি দীর্ঘদিন যাবৎ জাতীয়তাবাদী দলের পেশাজীবী সংগঠন ‘ডক্টর অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ড্যাব)’ এর কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন। সেই সঙ্গে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা শাখার সহ-সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন।
সর্বশেষ, ড্যাবের দায়িত্বে থাকার কারণে আওয়ামী লীগ ২০০৮ সালে ক্ষমতায় আসার পর তাকে ঢাকার বাইরে হয়রানিমূলক বদলি করা হয়। ওই বদলির কারণে তিনি বাধ্যতামূলক অবসরে যান। বর্তমানে তিনি রাজধানীর কাকরাইলে ইসলামী ব্যাংক সেন্ট্রাল হাসপাতালের ইউরোলজি বিভাগের সিনিয়র কনসালটেন্ট হিসেবে কর্মরত।
প্রসঙ্গত, হরিপুর, বালিয়াডাঙ্গী ও রাণীশংকৈল (আংশিক) উপজেলা নিয়ে ঠাকুরগাঁও-২ আসনের নির্বাচনী এলাকা গঠিত। আসনটিতে ২ লাখ ৭৩ হাজার ৪১৪ জন ভোটার রয়েছে। দীর্ঘ ৩০ বছর ধরে এ আসনটি ধরে রেখেছেন আওয়ামী লীগের এমপি মো. দবিররুল  ইসলাম,
৩০ বছর পর এবার অনেক উন্নয়ন করেছেন ঠাকুরগাঁও-২ আসনে রাস্তাঘাট কালভাট ব্রিজ শহীদ মিনার প্রতিষ্ঠানগুলোর অবকাঠামো আরো অনেক কিছু উন্নয়ন করেছেন। আওয়ামী লীগের এমপি আলহাজ্ব জাফরুল ইসলাম, এরপরও যদি পরিবর্তন হয় তাহলে আরো উন্নয়ন করবে বলে জানান চিকিৎসক আব্দুস সালাম,