বাবার কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নিতে অপহরণ নাটক

Tuesday, November 13th, 2018

আব্দুল কাইয়ুম চট্টগ্রাম প্রতিনিধি  : 
চট্টগ্রাম মহানগরীর জামালখান হেমসেন লেইনে একটি নির্মাণ কোম্পানির শ্রমিক মো. তারেক (২০) । বাবার কাছ থেকে ২০ হাজার টাকা হাতিয়ে নিতে নিজেই অপহরণ নাটক সাজিয়েছিল সে। অবশেষে ধরা পড়ল পুলিশের হাতে।দুইদিন নিখোঁজ থাকার পর রোববার (১১ নভেম্বর) দুপুরে তারেককে চট্টগ্রাম নগরীর হেমসেন এলাকা থেকে আটক করা হয়েছে বলে  জানিয়েছেন কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসিন।
তারেক কক্সবাজারের উখিয়ার উত্তর বড়বিল এলাকার আবদুছ ছালামের ছেলে। সে চট্টগ্রাম নগরে রেডিক্স ডেভেলপার নামের একটি নির্মাণ প্রতিষ্ঠানে একজন ঠিকাদারের অধীনে শ্রমিক হিসেবে এক মাস ধরে কাজ করে আসছিল। ছেলেকে অপহরণ করা হয়েছে দাবি করে শনিবার (১০ নভেম্বর) আবদুস সালাম  কোতোয়ালী থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।
‘শুক্রবার থেকে ছেলেকে মোবাইলে পাওয়া যাচ্ছে না বলে জানান আবদুস ছালাম। বাসায়ও আসেনি। শনিবার ছালামের মোবাইলে কয়েকবার ফোন করে ২০ হাজার টাকা দাবি করেন বলেও আমাদের জানান ছালাম। এরপর আমরা ছেলেটিকে উদ্ধারে অভিযানে নামি।’ বলেন ওসি মোহাম্মদ মহসিন।
কোতোয়ালী থানার উপপরিদর্শক (এসআই) ইমদাদ হোসেন চৌধুরী বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রোববার দুপুরে আমরা তাকে হেমসেন লেইন এক নম্বর গলির মুখ থেকে আটক করি। এসময় সে জানায়, তাকে কেউ অপহরণ করেনি। নিজের খরচের জন্য বাবার কাছ থেকে ২০ হাজার টাকা হাতিয়ে নিতে সে এই নাটক করেছিল।
তারেকের বাবা আবদুছ ছালাম বলেন, ‘শনিবার বিকেল ৪টা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত ছেলের নাম্বার থেকে আমার নাম্বারে একে একে ৬ বার ফোন দিয়ে বিকাশে ২০ হাজার টাকা পাঠাতে বলা হয়। মোবাইলের অপর প্রান্ত থেকে বার বার বলা হয়, টাকা না দিলে তারেককে মেরে ফেলা হবে।’
অপহরণের নাটক সাজিয়ে বাবার কাছ থেকে টাকা দাবির বিষয়ে তারেক বলেন, ‘শহরে আমার ভালো লাগছিল না। বাড়িতে ফিরে যাওয়ার জন্য অপহরণের নাটক সাজিয়ে টাকা চেয়েছিলাম।’
অপহরণের নাটক সাজাতে ওসমান নামের একজন তাকে সহযোগিতা করেছে বলেও জানান তারেক।
তারেককে আসামি করা হবে নাকি তার বাবার জিম্মায় দেওয়া হবে সেই সিদ্ধান্ত এখনও নেওয়া হয়নি বলে জানিয়েছেন এই পুলিশ কর্মকর্তা।