২০শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ৫ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, শরৎকাল

সুপার ব্লু ব্লাড মুনের সৌন্দর্য উপভোগ করল পৃথিবীবাসী

প্রকাশিতঃ ফেব্রুয়ারি ১, ২০১৮, ৮:৪৯ পূর্বাহ্ণ


৩১ জানুয়ারি বুধবার রাতে বিশ্ববাসী চন্দ্রগ্রহণের সাথে সুপার ব্লু ব্লাড মুনের সৌন্দর্য্য উপভোগ করলো বিশ্ববাসী। অস্ট্রেলিয়া, এশিয়াসহ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপের কিছু অঞ্চলে চাঁদ ও সূর্যের মাঝখানে পৃথিবী গ্রহ চলে আসায় এই অভূতপূর্ব ঘটনার জন্ম হয়।

এ মাসের দ্বিতীয় পূর্ণিমা ছিল এ দিন রাতে। স্বাভাবিকভাবেই এটি রূপ পায় ব্লু মুনে মানে নীলাভ রঙের চাঁদে।

সূর্য ও পৃথিবী একই কক্ষপথের কাছাকাছি চলে আসায় চাঁদের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি পায় ১৫ ভাগ পর্যন্ত আর বড় দেখায় ৭ ভাগ পর্যন্ত। এ জন্য এটিকে সুপার মুন বলে অভিহিত করেছে বিজ্ঞানীরা।

পরবর্তীতে এই তিন গ্রহ একই সরলরেখায় চলে আসলে তখন চন্দ্রগ্রহণের ঘটনা ঘটে। জিএমটি ১০:৫১ থেকে ১৬:০৮ টা পর্যন্ত এ চন্দ্রগ্রহণ দেখতে পায় বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মানুষরা।

এর মধ্যে সূর্যের কিছু আলো পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলে চলে গিয়ে আবার পৃথিবীতে ফেরত আসার সময় অন্যসব রঙ হারিয়ে শুধুমাত্র লাল রঙই মানুষের চোখে ধরা দেয়। যার কারণে পুরো চাঁদকে রক্তিম বর্ণের আলোয় দেখতে পেয়েছে মানুষ। তখন এটা হয়ে যায় ব্লাড মুন মানে রক্তিম চাঁদ।

পৃথিবীর বিভিন্ন জায়গায় সুপার ব্লু ব্লাড মুন দেখতে মানুষের মধ্যে উত্তেজনা কাজ করেছে। নাসাসহ বিভিন্ন দেশের মহাকাশ গবেষণা প্রতিষ্ঠান নিজেদের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম সাইটে এ সৌন্দর্য্য দেখার সুযোগ করে দেয় উৎসাহী জনতাকে।

এছাড়া ইউরোপ, এশিয়ার দেশগুলোর পর্যটন জায়গাগুলোতে স্বচক্ষে পূর্ণিমা উপভোগ করতে পর্যটকদের ব্যাপক ভীড় লক্ষ করা গেছে।

পৃথিবীবাসী সর্বশেষ ১৮৬৬ সালের ৩১ মার্চে এ ধরণের মুহুর্তের সাক্ষী হয়েছিল। বলতে গেলে প্রায় দেড়শ বছর পর আবার মহাকাশে এ ঘটনা ঘটল।  সূত্র: বিবিসি।

Leave a Reply

৯৭/৩/খ, উত্তর বিশিল, মিরপুর-১, ঢাকা-১২১৬
মোবাইলঃ ০১৭১২-৬৪৩৬৭৩, বার্তা বিভাগঃ ০১৭১২-৬৪৪৩৫০
ইমেইলঃ i[email protected], [email protected]

সম্পাদক:
মোঃ সুলতান চিশতী

ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ
মহসিন হাসান খান (বুলবুল)

নির্বাহী সম্পাদকঃ
মোঃ ইব্রাহিম হোসেন

সহকারী সম্পাদকঃ
মোঃ আতোয়ার হোসেন

আইন উপদেষ্টাঃ
শাহিন সরকার


.: Developed By :.
Great IT