২১শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ৬ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, শরৎকাল

সাভারে মহাসড়কে ছিনতাই থামছে না

প্রকাশিতঃ জানুয়ারি ৩, ২০১৮, ২:০২ অপরাহ্ণ


ঢাকার সাভারের একটি স্কুল থেকে নাতনিকে নিয়ে রিকশায় ফুলবাড়িয়ার বাসায় ফিরছিলেন দাদি মাকসুদা বেগম। তাঁর এক হাতে ছিল ব্যাগ, অন্য হাতে ধরে রেখেছিলেন নাতনিকে। এ সময় প্রাইভেট কার থেকে ছিনতাইকারীরা তাঁর ব্যাগটি ছোঁ মেরে নিয়ে যায়। তিনি রিকশা থেকে পড়ে মাথায় আঘাত পান। অচেতন হয়ে পড়েন তিনি। গত শুক্রবার বেলা ১১টায় ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের ব্যাংক টাউন এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

মাকসুদা বেগমের (৬০) ছেলের বউ নাবিলা আঞ্জুম জানান, ঘটনার পরপরই স্থানীয় ব্যক্তিরা অচেতন অবস্থায় তাঁকে উদ্ধার করে সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেই থেকে তিনি হাসপাতালের নিউরো বিভাগে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে চিকিৎসাধীন। গতকাল পর্যন্ত তাঁর জ্ঞান ফেরেনি। তিনি বলেন, তাঁর শাশুড়ির ব্যাগে মাত্র এক হাজার টাকা আর একটি মুঠোফোন ছিল। ছিনতাইকারীদের কবলে পড়ে তিনি এখন মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন।

স্থানীয় ব্যক্তিরা বলছেন, কী দিন কী রাত। যেকোনো সময় ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের নবীনগর, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়, সাভার বাসস্ট্যান্ড, ব্যাংক টাউন, জোড়পোল, বলিয়ারপুর, হেমায়েতপুর ও আমিনবাজার এলাকায় ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটছে। পুলিশের তৎপরতায় মাঝেমধ্যে দমনে থাকলেও ছিনতাই একেবারে বন্ধ হয় না।

সাভার হাইওয়ে থানার সার্জেন্ট সোহাগ রানা বলেন, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় মহাসড়কের উভয় পাশে প্রায়ই ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটছে। যাত্রী ও পথচারীদের নিরাপদ যাত্রা নিশ্চিত করার জন্য আশুলিয়া থানা ও হাইওয়ে থানার পুলিশ প্রতিদিন সন্ধ্যার পর ওই এলাকায় দায়িত্ব পালন করে থাকে। এরপরও ছিনতাই বন্ধ করা সম্ভব হচ্ছে না।

গত সোমবার সাভার হাইওয়ে থানার পাশেই ছিনতাইকারীদের কবলে পড়েন ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফের ব্যক্তিগত গাড়ির চালক রবিউল ইসলাম। ছিনতাইকারীরা তাঁকে ছুরি দিয়ে আঘাত করে তাঁর মুঠোফোন, আট হাজার টাকা ও গাড়ির চাবি ছিনিয়ে নেয়।

রবিউল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, সোমবার ঈশ্বররদী থেকে তিনি রাজধানীতে ফিরছিলেন। তাঁর গাড়িতে আর কেউ ছিলেন না। রাত সাড়ে নয়টার দিকে হাইওয়ে থানার পাশে নিরাপদ ভেবে জরুরি প্রয়োজনে তিনি গাড়িটি থামান। এ সময় তিন থেকে চারজন ছিনতাইকারী তাঁর ডান হাতে ছুরিকাঘাত করে টাকা, মুঠোফোন ও গাড়ির চাবি ছিনিয়ে নেয়। পরে তিনি দৌড়ে হাইওয়ে থানার ভেতরে গিয়ে কয়েকজন পুলিশ সদস্যদের কাছে ঘটনা বলেন। তবে পুলিশ তাঁর খোয়া যাওয়া টাকা ও মুঠোফোন উদ্ধারে কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। পরে তিনি সাভারের একটি হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়ে ঢাকায় চলে যান।

গত ২৭ ডিসেম্বরসাভার বাসস্ট্যান্ড এলাকায় পাটুরিয়াগামী একটি বাসের জানালার পাশে বসা ছিলেন রাজবাড়ীর উমা সরকার। এক ছিনতাইকারী জানালা দিয়ে হাত বাড়িয়ে তাঁর গলায় থাকা প্রায় এক ভরির হার নিয়ে পালিয়ে যায়।

বাসস্ট্যান্ড এলাকার ফুটপাতের কয়েকজন দোকানি বলেন, একটি চক্র বাসস্ট্যান্ড এলাকায় নিয়মিত যাত্রীদের কানের দুল ও গলার হার ছিনতাই করে। বাসস্ট্যান্ডে পুলিশ থাকলে তারা দূরে সরে যায়। পুলিশ চলে গেলে আবার আসে।

সাভার হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহিদুল ইসলাম বলেন, ভূমিমন্ত্রীর ব্যক্তিগত গাড়িচালকের কাছ থেকে বিষয়টি জানার পর ছিনতাইকারী ধরতে অভিযান চালানো হয়। কিন্তু কাউকে পাওয়া যায়নি। তিনি বলেন, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের উভয় পাশে জঙ্গল আছে। ছিনতাইকারীরা ওই জঙ্গলের মধ্যে ঘাপটি মেরে থাকে, সুযোগ পেলেই ছিনতাই করে।

সাভার মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মহসিনুল কাদির বলেন, গত চার মাসে বাসস্ট্যান্ড এলাকা থেকে শতাধিক ছিনতাইকারী আটক করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। কেউ কেউ জামিনে ছাড়া পেয়ে হয়তো আবার ছিনতাইয়ে জড়িয়ে পড়ছে।

ঢাকা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সাইদুর রহমান বলেন, ভুক্তভোগীদের পক্ষ থেকে অভিযোগ না দেওয়ায় অনেক ঘটনাই পুলিশের কাছে অজানা থেকে যাচ্ছে। এ কারণে অপরাধীরা পার পেয়ে যাচ্ছে। এরপরও ছিনতাই রোধে পুলিশকে আরও তৎপর করা হবে।

Leave a Reply

৯৭/৩/খ, উত্তর বিশিল, মিরপুর-১, ঢাকা-১২১৬
মোবাইলঃ ০১৭১২-৬৪৩৬৭৩, বার্তা বিভাগঃ ০১৭১২-৬৪৪৩৫০
ইমেইলঃ [email protected], [email protected]

সম্পাদক:
মোঃ সুলতান চিশতী

ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ
মহসিন হাসান খান (বুলবুল)

নির্বাহী সম্পাদকঃ
মোঃ ইব্রাহিম হোসেন

সহকারী সম্পাদকঃ
মোঃ আতোয়ার হোসেন

আইন উপদেষ্টাঃ
শাহিন সরকার


.: Developed By :.
Great IT