২৪শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ৯ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, শরৎকাল

লোহাগড়ায় প্রতিবন্ধী স্কুলছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় মানববন্ধন, বিক্ষোভ

প্রকাশিতঃ আগস্ট ১৩, ২০১৮, ৮:১৯ অপরাহ্ণ


নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার মঙ্গলহাটা গ্রামে এক স্কুল পরিচালনা পরিষদের সদস্য কর্তৃক মানসিক প্রতিবন্ধী এক স্কুলছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় মানববন্ধন করা হয়েছে। ধর্ষকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে আজ সোমবার দুপুরে লোহাগড়ার কেমঙ্গলহাটা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে এ কর্মসূচি পালন করেন তিন শতাধিক ছাত্র-ছাত্রী, শিক্ষক, জনপ্রতিনিধি ও সাধারণ মানুষ।

ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন স্কুলের শিক্ষক তসলিম হোসেন, স্কুল পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি মিজানুর রহমান, ইউপি সদস্য আকবর হোসেন লিপন, তুষার কাজী, শিক্ষক আতাউর রহমান, ফিরোজা খানম, শিলা রায়, সানজিদা খানম, নাসরিন খানম, শিক্ষার্থী মিম খানম প্রমুখ।

এ ঘটনায় একই সময়ে পাশের মল্লিকপুর ইউনিয়ন মাধ্যমিক স্কুলের শিক্ষার্থীরাও ব্যাপক বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করে। এ সময় অভিযুক্ত ধর্ষক মল্লিকপুর বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির সদস্য হওয়ায় বিদ্যালয়টির ছাত্র-ছাত্রী ও অভিভাবকরা তার বহিস্কার দাবি করেন। পরে শিক্ষার্থীদের দাবির প্রেক্ষিতে স্কুলটির পরিচালনা পরিষদের সভাপতি ও প্রধান শিক্ষক দুজনেই কমিটি থেকে অভিযুক্ত কামরুলকে বাদ দিয়ে এ ঘটনার বিচার চান।

এ প্রসঙ্গে মল্লিকপুর ইউনিয়ন মাধ্যমিক বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি মোঃ আতাউর রহমান বলেন, আমরা নিতিগতভাবে এ ধরনের জঘন্য ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাই। অভিযুক্ত কামরুলকে সাময়িক বহিস্কার করার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

জানা গেছে, গত ৫ আগষ্ট দুপুরে বাড়ি থেকে স্কুলে আসার পথে প্রাইমারী স্কুল সংলগ্ন অভিযুক্ত কামরুলের খাবারের দোকানে চকলেট কিনতে যায় প্রতিবন্ধী মেয়েটি। সে সময় ওই পাষণ্ড পঞ্চম শ্রেণিতে পড়ুয়া মেয়েটিকে অনেকগুলো চকলেট দিয়ে দোকানের স্টোর রুমে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে। এরপরে মেয়েটি বাড়িতে এসে তার মাকে ঘটনাটি বলে। মেয়েটির বাবা ঢাকায় চাকরি করার কারণে পরিবারের লোকেরা প্রভাবশালী কামরুলের ভয়ে কোনো ব্যবস্থা নিতে পারেনি। পরে ১০ আগষ্ট শিশুটির বাবা ঢাকা থেকে ফিরে এসে থানায় মামলা করেন। এর পর থেকে অভিযুক্ত কামরুল পলাতক থাকে। বর্তমানে ধর্ষণের শিকার শিশুটি নড়াইল সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

নড়াইল সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. মশিউর রহমান বাবু বলেন, ঘটনার ৫ দিন পরে মেয়েটি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। তার যাবতীয় পরীক্ষা করা হচ্ছে।

ধর্ষিত মেয়েটির বাবা বলেন, আমার মানসিক প্রতিবন্ধী মেয়েটিকে যে পাষণ্ড নির্যাতন করেছে আমি তার উপযুক্ত বিচার চাই। আসামি পক্ষের লোকেরা অত্যন্ত প্রভাবশালী। তারা টাকা দিয়ে ডাক্তারি রিপোর্ট ঘুরিয়ে দেবার পায়তারা করছেন।

এদিকে অভিযুক্ত কামরুলের মা কোহিনুর বেগম ছেলের পক্ষে সাফাই গেয়ে স্থানীয় রাজনীতির শিকার বলে দাবি করেছেন।

এ ব্যাপারে লোহাগড়া থানার অফিসার ইনচার্জ প্রবীর কুমার বিশ্বাস বলেন, কামরুল বর্তমানে পলাতক রয়েছে। তাকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

Leave a Reply

৯৭/৩/খ, উত্তর বিশিল, মিরপুর-১, ঢাকা-১২১৬
মোবাইলঃ ০১৭১২-৬৪৩৬৭৩, বার্তা বিভাগঃ ০১৭১২-৬৪৪৩৫০
ইমেইলঃ [email protected], [email protected]

সম্পাদক:
মোঃ সুলতান চিশতী

ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ
মহসিন হাসান খান (বুলবুল)

নির্বাহী সম্পাদকঃ
মোঃ ইব্রাহিম হোসেন

সহকারী সম্পাদকঃ
মোঃ আতোয়ার হোসেন

আইন উপদেষ্টাঃ
শাহিন সরকার


.: Developed By :.
Great IT