২০শে নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, হেমন্তকাল

ভাতকুন্ড ভূমিহীন পল্লীতে উচ্ছেদ আতঙ্ক উত্তেজনা

প্রকাশিতঃ সেপ্টেম্বর ৯, ২০১৮, ৫:৩৬ অপরাহ্ণ


আলিফ হুসেন (তানোর প্রতিনিধি) রাজশাহীর তানোর এবং নওগাঁর নিয়ামতপুর উপজেলার সীমান্ত সংলগ্ন বাহাদুর ইউপির ভাতকুন্ড দিঘলপুকুর ভূমিহীন পল্লীর বাসিন্দাদের মধ্যে উচ্ছেদ আতঙ্ক ও উত্তেজনা বিরাজ করছে। ভূমিহীনদের অভিযোগ, উপজেলা প্রশাসন, পুলিশ ও প্রভাবশালী ভূমিদুস্যুদের ত্রিমূখী হুমকিতে ভূমিহীন পল্লীর ৩৫টি পরিবার চরম আতঙ্কে মানবেতর জীবনযাপন করছে। চলতি বছরের ৫ সেপ্টেম্বর এলাকার ভূমিহীনরা তাদের নামে এসব জমি ইজারা (পত্তন) দেয়ার দাবিতে নওগাঁ জেলা প্রশাসক (ডিসি), নিয়ামতপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও নিয়ামতপুর থানায় লিখিত ভাবে আবেদন করেছেন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ইউনিয়ন ভূমি অফিসের কর্মকর্তা (তহসিলদার) বলেন, রফিকুল মন্ডল কোটি পতি হয়ে কিভাবে সরকারি খাস সম্পত্তি ইজারা পায় সে জাল কাগজপত্র তৈরী করে ভূমিহীনদের উচ্ছেদের পাঁয়তারা করছে যেটা সম্পূর্ন বেআইনি।
জানা গেছে, নওগাঁ জেলার নিয়ামতপুর উপজেলার বাহাদুরপুর ইউপির সীমান্ত সংলগ্ন ভাতকুন্ড গ্রমে জেল নম্বর ২৭৯ ভাতকুন্ড মৌজায়, সরকারি খাস এক নম্বর খতিয়ানভুক্ত, আরএস ৩৩১ নম্বর দাগে-১.৭৫ একর পুকুর পাড় ও আরএস ৩৩০ নম্বর দাগে ১.৩১ একর আয়তনের পুকুর রয়েছে। এদিকে সরকারি খাস পুকুর পাড়ে এলাকার হতদরিদ্র ভূমিহীন প্রায় ৩৫টি পরিবার বেড়া-টাটি দিয়ে ঘর নির্মাণ করে সেখানে শান্তিপূর্ণভাবে বসবাস শুরু করেছেন। কিšত্ত আদমপুর গ্রামের মুত ফজর আলীর পুত্র ভূমিদুস্যু রফিকুল মন্ডল ভূয়া তথ্য দিয়ে ও জালিয়াতির মাধ্যমে এসব সরকারি খাস সম্পত্তি তার নামে ইজারা নিয়ে এখন ভূমিহীনদের উচ্ছেদ করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে। এমনকি ভূমিহীনদের উচ্ছেদের জন্য ভূমিহীন পল্লীতে একাধিকবার পুলিশি অভিযান ও বাড়ি ভাঙচুর করা হয়েছে। এ ঘটনায় এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। ভূমিহীন পল্লীর বাসিন্দা রিয়াজ উদ্দিন (৪৫), আব্দুল জব্বার (৫৫) ও রোকেয়া বিবি (৩৫) অভিযোগ করে বলেন, রফিক উদ্দীন প্রায় ৩০০ বিঘা জমির মালিক এর পরেও সে ভূয়া ভূমিহীন সেজে মিথ্যা তথ্য দিয়ে এবং জালিয়াতির মাধ্যমে এসব খাস সম্পত্তি ইজারা নিয়ে এখন ভূমিহীনদের উচ্ছেদের জন্য নানা ভাবে ভয়ভীতি ও হুমকি দিচ্ছেন। তারা বলেন, আমরা হতদরিদ্র ভূমিহীন আমাদের যাবার কোনো জায়গা নাই, সরকারি খাস সম্পত্তিতে আমাদের অধিকার রয়েছে, আমাদের শরীরে একবিন্দু রক্ত থাকা পর্যন্ত এই জায়গার দখল দিবো না। এদিকে ভূমিহীন পল্লীর বাসিন্দারা এ বিষয়ে সরেজমিন তদন্তপূর্বক যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্লিস্ট বিভাগের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। এব্যাপারে নিয়ামতপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মাহাফিজুর রহমান বলেন, এ বিষয়ে বিস্তারিত খোঁজখবর নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এব্যাপারে রফিকুল মন্ডল অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, তিনি বৈধভাবে এসব সম্পত্তি সরকারের কাছে থেকে ইজারা নিয়েছেন।

Leave a Reply

৯৭/৩/খ, উত্তর বিশিল, মিরপুর-১, ঢাকা-১২১৬
মোবাইলঃ ০১৭১২-৬৪৩৬৭৩, বার্তা বিভাগঃ ০১৭১২-৬৪৪৩৫০, সার্কুলেশন বিভাগঃ০১৯১৬০৯৯০২০
ইমেইলঃ [email protected], [email protected]

সম্পাদক:
মোঃ সুলতান চিশতী

ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ
মহসিন হাসান খান (বুলবুল)

নির্বাহী সম্পাদকঃ
মোঃ ইব্রাহিম হোসেন

সহকারী সম্পাদকঃ
মোঃ আতোয়ার হোসেন

আইন উপদেষ্টাঃ
শাহিন সরকার


.: Developed By :.
Great IT