২১শে নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, হেমন্তকাল

বাড়ছে আকার, কমছে বাস্তবায়নের হার

প্রকাশিতঃ জুন ৭, ২০১৮, ১১:৪২ পূর্বাহ্ণ


এ বছর বড় আকারের বাজেট দিতে যাচ্ছেন অর্থমন্ত্রী। কয়েক বছর ধরেই বড় বাজেট দেওয়া হয়েছে। তবে বাজেট বাস্তবায়নের হার ক্রমেই কমছে। এখন বাজেট বাস্তবায়ন ৭৮-৮০ শতাংশে নেমে এসেছে। এবার বাজেটের বড় আকার দেখে যেন দ্বিধাগ্রস্ত না হয়ে যাই।

এবারের বাজেট অবশ্যই নির্বাচন সামনে রেখে হবে। তবে বেশ কিছু বিষয় নজরে রাখতে হবে। বাজেট পাসের পর থেকে নির্বাচনের আগ পর্যন্ত বড় ধরনের অর্থ ছাড় হতে পারে। সেদিকে নজর রাখতে হবে। বড় অঙ্কের অর্থ ছাড় করে মূলত বড় উন্নয়ন প্রকল্পগুলো দৃশ্যমান করার প্রচেষ্টা থাকবে। তবে তাড়াহুড়ো করে অর্থ ছাড়ের কারণে প্রকল্পের গুণগত মান থাকছে কি না, তা নজরে রাখার প্রয়োজনীয়তা আছে। দেখতে হবে, কোন কোন খাতে বাড়তি খরচ করা হচ্ছে। কোন কোন খাতকে অগ্রাধিকার দেওয়া দরকার, সেসব বিষয়ে আমাদের সামনে বড় গাইডলাইন আছে। সেটি হলো, টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্য (এসডিজি)। এখানে কোন কোন খাতে আমরা পিছিয়ে আছি, তা চিহ্নিত করা আছে। যেমন শিক্ষা, স্বাস্থ্য, কর্মসংস্থান সৃষ্টি, সামাজিক অসাম্য দূরীকরণ-এসব খাতে পর্যাপ্ত বরাদ্দ দেওয়া হচ্ছে কি না।

বাজেটের সঙ্গে যদি এসডিজির সমন্বয় না হয় এবং নির্বাচনকে কেন্দ্র করে জনতুষ্টির প্রকল্প বাস্তবায়নে প্রাধান্য দেওয়া হয়, তাহলে তাতে রাজনৈতিকভাবে লাভবান হওয়া যাবে। নির্বাচনের বছরে বাজেটে রাজনৈতিকভাবে লাভবান হওয়ার বিষয়টি থাকবে। তবে খেয়াল রাখতে হবে এসডিজির বড় লক্ষ্য অর্জন থেকে যেন আমরা বিচ্যুত না হই।

রাজস্ব আদায়ে সাফল্য খুব দুর্বল। কর আদায়ের ক্ষেত্রে এ বছরও অন্য বছরের চেয়ে বড় ধরনের সাফল্য নেই। নির্বাচনের বছরের কারণে আগামী বছর সাফল্যের হার আরও কমে যেতে পারে। করদাতাদের ওপর অতিরিক্ত কোনো চাপ দেওয়া হবে না। কিছু ক্ষেত্রে কর ছাড় দেওয়ার কথা শুনছি। যেমন করপোরেট কর কমানো হবে। সামনের বছরও যদি রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্য অর্জিত না হয়, তাহলে বড় বাজেটের যে পরিকল্পনা করা হচ্ছে, সেটা কতটা বাস্তবায়িত হবে, তা নিয়ে প্রশ্ন দেখা দেবে।

রাজস্ব আদায়ে বড় সংস্কার আনা সম্ভব হচ্ছে না। মূল্য সংযোজন কর (ভ্যাট) আইন বাস্তবায়ন পিছিয়ে গেছে। শুল্ক আইনও পিছিয়ে যাচ্ছে। তাই অর্থনীতিতে বড় ধরনের যে গতিশীলতা আনার দরকার ছিল, এই আইনগুলো বাস্তবায়িত না হওয়ায় তা ব্যাহত হয়েছে। এমনিতেই বাংলাদেশের কর-জিডিপি অনুপাত পৃথিবীর মধ্যে অন্যতম সর্বনিম্ন। ভারত, নেপালে কর-জিডিপি অনুপাত বাংলাদেশের চেয়ে বেশি। বড় বড় প্রকল্প বাস্তবায়নের মাধ্যমে অর্থনীতিকে আরেক ধাপ উত্তরণের চেষ্টা করা হচ্ছে, তবে পরিচালনার দক্ষতার খুব বেশি উন্নতি হয়নি।

Leave a Reply

৯৭/৩/খ, উত্তর বিশিল, মিরপুর-১, ঢাকা-১২১৬
মোবাইলঃ ০১৭১২-৬৪৩৬৭৩, বার্তা বিভাগঃ ০১৭১২-৬৪৪৩৫০, সার্কুলেশন বিভাগঃ০১৯১৬০৯৯০২০
ইমেইলঃ [email protected], [email protected]

সম্পাদক:
মোঃ সুলতান চিশতী

ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ
মহসিন হাসান খান (বুলবুল)

নির্বাহী সম্পাদকঃ
মোঃ ইব্রাহিম হোসেন

সহকারী সম্পাদকঃ
মোঃ আতোয়ার হোসেন

আইন উপদেষ্টাঃ
শাহিন সরকার


.: Developed By :.
Great IT