১৬ই অক্টোবর, ২০১৮ ইং | ১লা কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, হেমন্তকাল

নারায়ণগঞ্জ সিটি পাচ্ছে ৪৬১ কোটি টাকা

প্রকাশিতঃ সেপ্টেম্বর ১৭, ২০১৮, ৯:৩৫ অপরাহ্ণ


ডেস্ক নিউজ: অবকাঠামো উন্নয়নে ৪৬১ কোটি টাকা পাচ্ছে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন। এজন্য নেয়া হচ্ছে আলাদা প্রকল্প। অবকাঠামো নির্মাণ ও উন্নয়ন প্রকল্প। জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় মঙ্গলবার প্রকল্পটি অনুমোদনের জন্য উপস্থাপন করা হবে।

পরিকল্পনা কমিশন সূত্র জানায়, এ প্রকল্পটির প্রাক্কলিত ব্যয় ধরা হয়েছে ৪৬১.২৬ কোটি টাকা। এর মধ্যে জিওবি ৩৬৯.০১ কোটি টাকা এবং সংস্থার নিজস্ব তহবিল ৯২.২৫ কোটি টাকা। এটি স্থানীয় সরকার বিভাগের আওতায় নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন (এনসিসি) কর্তৃক বাস্তবায়িত হবে। প্রকল্পটি চলতি বছর হতে ২০২১ সাল মেয়াদকালে বাস্তবায়িত হবে।

নারায়ণগঞ্জ বাংলাদেশের একটি অতি পুরাতন ঐতিহ্যবাহী নদী বন্দর এবং শিল্প নগরী। শিল্পঘন এই নগরী এক সময় পাট ও পাটজাত পণ্যের জন্য বিখ্যাত ছিল। ঔপনিবেশিক শাসন আমলে শীতলক্ষ্যা নদীর উভয় পাড়ে নারায়ণগঞ্জ নদীবন্দরকে কেন্দ্র করে গড়ে ওঠা এ নগরী পাট ও পাটজাত পণ্যের ব্যবসার জন্য প্রাচ্যের ডান্ডি হিসেবে খ্যাতি অর্জন করে। কালের বিবর্তনে এ শিল্প বিলুপ্ত হলেও বর্তমানে রফতানিযোগ্য নিটওয়ারের প্রায় শতকরা ৮০ ভাগই নারায়ণগঞ্জে অবিস্থত। নগরীর মধ্যদিয়ে প্রবাহিত শীতলক্ষ্যা নদীর দু’তীরে গড়ে ওঠা বিভিন্ন ধরনের শিল্প প্রতিষ্ঠানের কারণে ঢাকার পার্শ্ববর্তী ঘনবসতিপূর্ণ শিল্পসমৃদ্ধ এ বন্দর নগরীর গুরুত্ব পর্যায়ক্রমে বৃদ্ধি পাচ্ছে। এ নগরীর গুরুত্ব বিবেচনায় ২০১১ সালে ঐতিহ্যবাহী নারায়ণগঞ্জ, সিদ্ধিরগঞ্জ এবং কদমরসুল ৩ (তিন) টি পৌরসভা নিয়ে ‘নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন’ প্রতিষ্ঠা করা হয়। সাবেক তিনটি পৌরসভার মধ্যে সিদ্ধিরগঞ্জ ও কদমরসুল অঞ্চল দু’টি খুবই অনুন্নত ও অনগ্রসর। সিটি কর্পোরেশনের মোট আয়তন ৭২.৪৩ বর্গ কিলোমিটার এর মধ্যে সিদ্ধিরগঞ্জ ও কদমরসুল অঞ্চল দুটির আয়তন প্রায় ৫৫ বর্গ কিলোমিটার।

কদম রসুল ও সিদ্ধিরগঞ্জ এ দুই অঞ্চলের অধিকাংশ সড়ক কাঁচা। বিদ্যমান সড়কের অবস্থাও ভালো নয়। অধিকন্তু রাস্তার প্রশস্ততা খুবই সংকীর্ণ। ট্রাফিক জ্যাম এ অঞ্চলের নিত্য নৈমিত্তিক দৃশ্য। কদমরসুল ও সিদ্ধিরগঞ্জে ড্রেনেজ ব্যবস্থাও নাজুক। বৃষ্টির পানি যথাযথভাবে প্রবাহিত হতে পারে না বিধায় অল্প বর্ষণে এ নগরী প্লাবিত হয়। ফলে অবকাঠামো ক্ষতিগ্রস্ত হয় এবং জনসাধারণের চলাচলে ভীষণ অসুবিধা হয়। তাই মানসম্মত সড়ক যোগাযোগ ও ড্রেনেজ ব্যবস্থা গড়ে তোলার জন্য এ প্রকল্প প্রস্তাব করা হয়েছে।

প্রকল্পের ডিপিপির ওপর গত বছরের নভেম্বরে পিইসি সভা অনুষ্ঠিত হয়।

প্রকল্প বাস্তবায়ন শেষ হলে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের সড়ক উন্নয়ন এবং প্রশস্তকরণের মাধ্যমে যাতায়াত ব্যবস্থা সহজতরকরণ; ড্রেন নির্মাণের মাধ্যমে জলাবদ্ধতা নিরসন; ফুটপাত নির্মাণ করে পথচারীদের চলাফেরা নিরাপদকরণ; খাল খনন ও পাড় বাঁধাইয়ের মাধ্যমে জলাভূমি সংরক্ষণ; এলইডি সড়কবাতি স্থাপনের মাধ্যমে রাত্রিকালীন নিরাপত্তা প্রদান করা সম্ভব হবে।

এ প্রকল্পের আওতায় সড়ক মেরামত ও রক্ষণাবেক্ষণ-৩৫৭৭৯ মিটার; বিসি রোড নির্মাণ-২২০৯৭ মিটার; আরসিসি রোড নির্মাণ-৭৯২৯৬ মিটার; আরসিসি ড্রেন নির্মাণ-৯০৫৩২ মিটার; ফুটপাতসহ আরসিসি ড্রেন নির্মাণ-৮৭৫০ মিটার; বাতি স্থাপন-৭৩৩২টি; খাল সংরক্ষণ-৪৮১০ মিটার; বৃক্ষরোপণ-৪৯৩০টি; কবরস্থান নির্মাণ-১৪টি; ঘাটলা উন্নয়ন-৯টি মাঠ উন্নয়ন ও সবুজায়ন করা হবে।

Leave a Reply

৯৭/৩/খ, উত্তর বিশিল, মিরপুর-১, ঢাকা-১২১৬
মোবাইলঃ ০১৭১২-৬৪৩৬৭৩, বার্তা বিভাগঃ ০১৭১২-৬৪৪৩৫০
ইমেইলঃ [email protected], [email protected]

সম্পাদক:
মোঃ সুলতান চিশতী

ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ
মহসিন হাসান খান (বুলবুল)

নির্বাহী সম্পাদকঃ
মোঃ ইব্রাহিম হোসেন

সহকারী সম্পাদকঃ
মোঃ আতোয়ার হোসেন

আইন উপদেষ্টাঃ
শাহিন সরকার


.: Developed By :.
Great IT