১৮ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং | ৪ঠা পৌষ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, শীতকাল

নান্দনিক ফুটবল নয়, কাপ জেতাই শেষ কথা: রিভালদো

প্রকাশিতঃ জুন ২৭, ২০১৮, ১২:০৭ অপরাহ্ণ


গ্রুপ পর্বেই নক আউটের স্নায়ুচাপ হয়তো অনুভব করছেন ব্রাজিল কোচ। সার্বিয়ার সঙ্গে গ্রুপের শেষ ম্যাচেই যে নির্ধারিত হবে তিতের দলের দ্বিতীয় রাউন্ডের অঙ্ক। বিশ্বকাপের মতো আসরে কোনো প্রতিপক্ষ কিংবা বিষয়কে হালকাভাবে নেওয়ার সুযোগ নেই। আন্তর্জাতিক ফুটবলে দলগুলোর সামর্থ্যের পার্থক্য ক্রমেই কমে আসছে। রাশিয়া এরই মধ্যে দেখিয়ে দিয়েছে, বর্তমান চ্যাম্পিয়ন জার্মানি প্রথম ম্যাচেই হেরেছে। অন্য বড় দলগুলোরও কঠিন সময় গেছে।

তবে আজকের ব্রাজিল দল এবং এর কোচ নামি ক্লাবের হয়ে অনেক ট্রফি জিতেছেন। বিশ্বের সেরা সব ক্লাবে এরা খেলে। তাই চাপ নিয়ে এরা অভ্যস্ত। শেষ গ্রুপ ম্যাচ জেতার ‘দায়বদ্ধতা’র চাপও ওদের সামাল দিতে পারার কথা।

অবশ্য চাপ তো ব্রাজিলের ওপর টুর্নামেন্ট শুরুর আগে থেকেই। আমরা পাঁচবারের চ্যাম্পিয়ন। ব্রাজিলের জার্সি গায়ে পেলে, জিকো, রোনালদো এবং আরো অনেক তারকা খেলেছেন। তো আপনি যত জিতবেন, ততই প্রত্যাশার চাপ বাড়বে। বিশ্বকাপের আগে একটাই ম্যাচ হেরেছে ব্রাজিল, সেই প্রীতি ম্যাচে আবার নিয়মিত একাদশ খেলেওনি। তাই ব্রাজিলের কাছে আকাশচুম্বী দাবি সবার।

৪-২-৩-১ ফরমেশনে নেইমার আর উইলিয়ানকে উইংয়ে রেখে কৌতিনিয়োকে লিংকম্যান হিসেবে খেলাচ্ছেন তিতে। আক্রমণগুলো হচ্ছে মাঝমাঠ দিয়ে। আবার উইং সচল থাকায় দুই দিক দিয়েও আক্রমণে যাচ্ছে ব্রাজিল। আমি তো বলব দারুণ কম্বিনেশন। প্রয়োজনে নিচে থেকে উঠে আসছে পাওলিনিয়ো আর একদম সামনে গ্যাব্রিয়েল জেসুস রয়েছে। তবে নেইমারের ব্রাজিল দলে কাসেমিরো দারুণ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে।

আমরা সবাই জানি যে ব্রাজিলের নির্দিষ্ট কোনো অধিনায়ক নেই। একেক ম্যাচে একেকজনকে আর্মব্যান্ড দিচ্ছেন তিতে। নির্দিষ্ট নেতা না থাকার সমস্যা হলো আবেগের মুহূর্তে দলকে সামলানো কঠিন হয়ে যায়। আশা করি কাজটা ঠিকঠাক করবেন তিতে। এ ধরনের পরিস্থিতিতে মার্সেলো এগিয়ে আছে। তবে আমি মনে করি নেইমারকে মূল দায়িত্বটা পালন করতে হবে। সার্বিয়ার সঙ্গে ম্যাচটা ব্রাজিলের জন্য বেশ জটিল হতে পারে। তবে দলে এমন কিছু খেলোয়াড় আছে, যারা এ জটিল কাজটাকেই সহজ করে দিতে পারে। ডেড বল নিয়ে কিছুটা চিন্তা হচ্ছে। সার্বিয়া বাতাসে বল দখলের লড়াইয়ে ভালো। তাই নিজেদের বক্সের ভেতর উঁচু বলগুলোর দিকে নজর রাখতে হবে ব্রাজিলের ডিফেন্সকে।

অনেকেই শুনছি ব্রাজিলের সাবেক আর বর্তমান দল ও খেলোয়াড়দের তুলনা করতে। কিন্তু ইতিহাসের নায়কদের তুলনা করা কঠিন। সময় আর পরিস্থিতি সবার জন্য এক হয় না। কিংবদন্তি সবারই অবদান রয়েছে। ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো একজন গ্রেট ফুটবলার, লিওনেল মেসিও। এ দুজনের তুলনায় ভিন্নমতও আছে। আমাদের রোনালদো, রোনালদিনহো কিংবা জিদান এবং আমার বেলায়ও তাই। আমি বিশ্বাস করি, নিজেদের সময়ে সর্বোচ্চ পর্যায়ে আমরা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পেরেছি। ফুটবলের জনপ্রিয়তা বৃদ্ধিতে অবদান আছে। একেকজন একেক স্টাইলে খেলেছে। তাই কোনো একজনকে সেরার মুকুট পরিয়ে দেওয়া যায় না।

অনেকে আবার অনুযোগ করে যে ব্রাজিলের ফুটবল আগের মতো আনন্দ দেয় না। সবার প্রত্যাশা ব্রাজিল স্কিল আর সুন্দর ফুটবলের পাশাপাশি টেকনিক্যালিও নিখুঁত হবে। সেটা না হলেই সমালোচিত হবে ব্রাজিল। তবে ইতিহাস বলে নান্দনিক ফুটবলের জন্য আমাদের অন্যতম সেরা দল শিরোপা জেতেনি। দিন শেষে ফলটাই শেষ কথা।

ব্রাজিল সুন্দর ফুটবল খেলল কি খেলল না সেটা নয়, কাপ জেতাই শেষ কথা; খেলোয়াড় এবং ভক্তদের কাছে।

Leave a Reply

৯৭/৩/খ, উত্তর বিশিল, মিরপুর-১, ঢাকা-১২১৬
মোবাইলঃ ০১৭১২-৬৪৩৬৭৩, বার্তা বিভাগঃ ০১৭১২-৬৪৪৩৫০, সার্কুলেশন বিভাগঃ০১৯১৬০৯৯০২০
ইমেইলঃ [email protected], [email protected]

সম্পাদক:
মোঃ সুলতান চিশতী

ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ
মহসিন হাসান খান (বুলবুল)

নির্বাহী সম্পাদকঃ
মোঃ ইব্রাহিম হোসেন

সহকারী সম্পাদকঃ
মোঃ আতোয়ার হোসেন

আইন উপদেষ্টাঃ
শাহিন সরকার


.: Developed By :.
Great IT