১৬ই অক্টোবর, ২০১৮ ইং | ১লা কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, হেমন্তকাল

দুই কার্যদিবস পর ফের দরপতন শেয়ারবাজারে

প্রকাশিতঃ সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৮, ৭:৫১ অপরাহ্ণ


ডেস্ক নিউজ: দুই কার্যদিবস ঊর্ধ্বমুখী থাকার পর বৃহস্পতিবার ফের দেশের শেয়ারবাজারে দরপতন হয়েছে। প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) এবং অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সবকটি মূল্যসূচকের পতন হয়েছে।

আগের দুই কার্যদিবস শেয়ারবাজার ঊর্ধ্বমুখী রাখতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখা ব্যাংক ও আর্থিক খাতের সিংহভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দাম এদিন কমেছে। যার নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে অন্য খাতের উপরও। ফলে পতনের তালিকায় স্থান করে নিয়েছে বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠান।

এদিন ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয়া মাত্র ৩টি ব্যাংকের শেয়ারের দাম বেড়েছে। বিপরীতে কমেছে ২১টির। আর্থিক খাতের মধ্যে দাম বাড়ার তালিকায় স্থান করে নিয়েছে মাত্র দুটি প্রতিষ্ঠান। বিপরীতে দাম কমেছে ১৮টির।

আর সব খাত মিলে ৮২টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম আগের দিনের তুলনায় বেড়েছে। বিপরীতে কমেছে ২২২টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দাম। আর দাম অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৪টির।

বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম কমায় এদিন ডিএসইর প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের তুলনায় ৩৮ পয়েন্ট কমে ৫ হাজার ৪৬৭ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। অপর দুটি মূল্যসূচকের মধ্যে ডিএসই-৩০ আগের দিনের তুলনায় ১০ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ৯০১ পয়েন্টে অবস্থান করছে। আর ডিএসই শরিয়াহ্ সূচক ৫ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ২৫৫ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

বৃহস্পতিবার বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম কমায় ডিএসইর বাজার মূলধনও কমেছে। দিনের লেনদেন শেষে ডিএসইর বাজার মূলধন দাঁড়িয়েছে ৩ লাখ ৮৯ হাজার ৮২১ কোটি টাকা। যা আগের কার্যদিবস শেষে ছিল ৩ লাখ ৯১ হাজার ৭২৩ কোটি টাকা। অর্থাৎ বাজারটির বাজার মূলধন কমেছে ১ হাজার ৯০২ কোটি টাকা।

মূল্যসূচক ও বাজার মূলধন কমলেও বাজারটিতে বেড়েছে লেনদেনের পরিমাণ। দিনভর ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৮২৬ কোটি ১৬ লাখ টাকার শেয়ার। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৮২৪ কোটি ৭১ লাখ টাকার শেয়ার। সে হিসাবে লেনদেন বেড়েছে ১ কোটি ৪৫ লাখ টাকা।

টাকার অংকে ডিএসইতে আজ সব থেকে বেশি লেনদেন হয়েছে কেপিসিএলের শেয়ার। এদিন কোম্পানিটির মোট ৮৭ কোটি ৬১ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা ইফাদ অটোসের শেয়ার লেনদেন হয়েছে ৬০ কোটি ১৭ লাখ টাকার। ৩৫ কোটি ৪৭ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনে তৃতীয় স্থানে রয়েছে অ্যাকটিভ ফাইন।

লেনদেনে এরপর রয়েছে বিবিএস কেবলস, শাশা ডেনিম, আমান ফিড, ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশন, ফরচুন সুজ, ন্যাশনাল হাউজিং ফাইন্যান্স এবং কনফিডেন্স সিমেন্ট।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের সার্বিক মূল্যসূচক সিএসসিএক্স ৩৭ পয়েন্ট কমে ১০ হাজার ২২৭ পয়েন্টে অবস্থান করছে। বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ৩৪ কোটি ৩৩ লাখ টাকার শেয়ার। লেনদেন হওয়া ২৩৯টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের মধ্যে ৭৩টির দাম বেড়েছে। বিপরীতে কমেছে ১৫১টির। আর অপরিবর্তিত রয়েছে ১৫টির দাম।

Leave a Reply

৯৭/৩/খ, উত্তর বিশিল, মিরপুর-১, ঢাকা-১২১৬
মোবাইলঃ ০১৭১২-৬৪৩৬৭৩, বার্তা বিভাগঃ ০১৭১২-৬৪৪৩৫০
ইমেইলঃ [email protected], [email protected]

সম্পাদক:
মোঃ সুলতান চিশতী

ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ
মহসিন হাসান খান (বুলবুল)

নির্বাহী সম্পাদকঃ
মোঃ ইব্রাহিম হোসেন

সহকারী সম্পাদকঃ
মোঃ আতোয়ার হোসেন

আইন উপদেষ্টাঃ
শাহিন সরকার


.: Developed By :.
Great IT