১৩ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং | ২৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, হেমন্তকাল

দলের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র অপপ্রচার তৃণমূলকেই রুখতে হবে : ময়না

প্রকাশিতঃ সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৮, ১১:৫৫ পূর্বাহ্ণ


আলিফ হুসেন (তানোর প্রতিনিধি) রাজশাহীর তানোরে সরনজাই ইউনিয়নের (ইউপি) ৪ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের কর্মীসভা ও রাজশাহী জেলা যুবলীগের প্রয়াত সাধারণ সম্পাদক এএইচএম খালিদ ওয়াশি কেটুর বিদেহী আতœার মাগফিরাত কামনায় বিশেষ দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। জানা গেছে, চলতি বছরের ১৯ সেপ্টেম্বর বুধবার সন্ধ্যায় সরনজাই ইউপির বটবাজার চত্ত্বরে ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি মিলন খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কর্মীসভা ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ও কলমা ইউপি চেয়ারম্যান লুৎফর হায়দার রশিদ ময়না এবং প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক জুবায়ের ইসলাম। অস্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সরনজাই ইউপি আওয়ামী লীগের সভাপতি ও চেয়ারম্যান আব্দুল মালেক মন্ডল, যুবলীগ নেতা আহম্মেদ সিজার, সিজার মান্টার, বেলাল হোসেন, উজ্জ্বল হোসেন, সোহেল রানা, বকুল হোসেন ও সবুজ আহম্মেদ প্রমূখ।
প্রধান অতিথি বলেন, রাজশাহীতে আওয়ামী লীগের আজকের যেই জয়জয়কার অবস্থান সেটি জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি, সাবেক শিল্প প্রতিমন্ত্রী ও সাংসদ আলহাজ্ব ওমর ফারুক চৌধূরীর রাজনৈতিক দূরদর্শীতা ও নেতৃত্বে তার হাত ধরেই হয়েছে সেই অবদানের কথা কেউ অস্বীকার করতে পারবে না, তিনি আওয়ামী লীগে আশার আগের অবস্থান ও আশার পরের অবস্থান বিশ্লেসণ করলেই এই সত্য সকলের কাছে দৃশ্যমান হয়ে উঠবে। তিনি বলেন, রাজনীতিতে আশার আগেই এমপি ওমর ফারুক চৌধূরী সিআইপি, রাজশাহীর প্রথম স্বচ্ছ আয়কর দাতা, রাজশাহী চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি হয়েছেন। এছাড়াও তিনি শহীদ পরিবারের সন্তান ও জাতীয় চার নেতার অন্যতম শহীদ এএইচএম কামরুজ্জামান হেনার ভাগ্নে, তিনি প্রায় ২০ বছর ধরে রাজশাহী আওয়ামী লীগকে নেতৃত্ব দিয়ে আসছেন তিনি দু’বার সাংসদ ও একবার প্রতিমন্ত্রী হয়েছেন, এছাড়াও তিনি দলের নেতা ও নেতৃত্বের প্রতি বিশস্ত কারণ জেলা পরিষদ নির্বাচনে অবৈধ সুবিধার বিনিময়ে অধিকাংশ নেতা আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীর পক্ষে মাঠে নামলেও একমাত্র ফারুক চৌধূরী দলের সঙ্গে বেঈমানি না করে আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থীর পক্ষে ছিলেন। তিনি বলেন, এসব বিবেচনায় প্রার্থীর পারিবারিক ও আর্থিক অবস্থান, উন্নয়ন কাজের মানসিকতা, নেতৃত্বগুন, দল-নেতা ও নেতৃত্বের প্রতি আনুগত্য-বিশ্বাস, তৃণমূলের নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষের কাছে গ্রহণযোগ্যতা, শারীরিক-মানসিক দৃঢতা, ব্যক্তি ইমেজ, রাজনৈতিক দূরদর্শীতা ইত্যাদি বিচার-বিশ্লেণণ ও পর্যালোচনা করে সারাদেশে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ প্রথম পর্যায়ে প্রাথমিক ভাবে ১৫১টি সংসদীয় আসনে সাম্ভব্য প্রার্থীর তালিকা প্রকাশ করেছেন, যেখানে রাজশাহী-১ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে নাম এসেছে ওমর ফারুক চৌধূরীর। তিনি বলেন, তাদের নেতা ওমর ফারুক চৌধূরী এমপির ওপরই ফের আস্থা এবং ভরসা রেখে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ আগামি একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আবারো তাকেই দলীয় মনোনয়ন দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়ে মাঠ গোছানোর নির্দেশ দিয়েছেন। প্রধান অতিথি তার বক্তব্য তানোর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও মুন্ডুমালা পৌর মেয়র গোলাম রাব্বানীর নাম উল্লেখ না করে বলেন, এমপি ওমর ফারুক চৌধূরীর একক সিদ্ধান্তে যিনি দুবার উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও দুবার মুন্ডুমালা পৌরসভার মেয়র হয়েছেন যাকে দুবার উপজেলা নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন দেয়া হয়েছে, যিনি এমপি ফারুকের সঙ্গে দীর্ঘ প্রায় কুড়ি বছর থেকে ষোলকলা পূর্ণ করেছেন তিনি কি ভাবে হঠাৎ করেই এমপি মনোনয়ন প্রত্যাশা করে এমপি ফারুক চৌধূরী ও আওয়ামী লীগের বিরোধীতা করে নানা অপপ্রচারে লিপ্ত হয়েছেন। তিনি বলেন, এমপি ফারুক চৌধূরী না চাইলে তিনি তো উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও মুন্ডুমালা পৌর মেয়র হতে পারতেন না। তিনি বলেন, দলের যে কেউ মনোনয়ন চাইতে পারে তবে, তিনি যদি সত্যিই এমপি নির্বাচন করতে চান তাহলে তৃণমূলের প্রতিটি ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে আওয়ামী লীগের কর্মীসভা করে আওয়ামী লীগের উন্নয়ন ও অর্জনের কথা প্রচার করুক দল তাকে মনোনয়ন দিলে আমরাও নৌকার জন্য ভোট করবো। কিšত্ত তিনি এসব না করে জামায়াত-বিএনপির নেতাকর্মীদের নিয়ে শো-ডাউন দিয়ে তাদের বি-টিম হয়ে দলের ও এমপির বিরুদ্ধে অপপ্রচার করছেস এটা কি এমপি মনোনয়ন প্রত্যাশীর কাজ। তিনি বলেন, যে ব্যক্তি আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়নে উপজেলা নির্বাচনে প্রার্থী হয়ে দুবারই পরাজিত হয়েছেস, যিনি দুবার মুন্ডুমালা পৌরসভার মেয়র নির্বাচিত হলেও পৌর এলাকায় দৃশ্যমান তেমন কোনো উন্নয়ন করতে পুরোপুরি ব্যর্থ হয়েছেন, যার সঙ্গে নির্বাচনী এলাকার আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের দায়িত্বশীল সাংগঠনিক কোনো নেতাকর্মী নাই তিনি কিভাবে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশা করেন, অথচ তিনি মনোনয়ন পাবেন না এটা নিশ্চিত হয়েও আওয়ামী লীগের অত্যন্ত সম্ভবনাময় গোছানো ভোটের মাঠ নস্ট করতে মরিয়া হয়ে উঠেছেন কার স্বার্থে। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগে কি নেতৃত্বের সংকট আছে যে কুড়ি বছরের পরীক্ষিত নেতৃত্ব এমপি ওমর ফারুক চৌধূরীকে বঞ্চিত করে নতুন নেতৃত্ব দিয়ে ঝুঁকি নিবেন। তিনি বলেন, যারা আওয়ামী লীগের উন্নয়ন ও অর্জন তুলে না ধরে সাধারণ মানুষের মধ্যে আওয়ামী লীগ ও এমপির বিরোধীতা করে অপপ্রচার-ষড়যন্ত্র করছে তাদের প্রতিহত করতে হবে তৃণমূলকেই। তিনি বলেন, যে যাই বলুক এখানে আবারো আওয়ামী লীগের প্রার্থী হচ্ছেন আলহাজ্ব ওমর ফারুক চৌধূরী (এমপি) আপনারা তৃণমূলের নেতাকর্মীরা আওয়ামী লীগের উন্নয়ন ও অর্জনের চিত্র তুলে ধরে সাধারণ মানুষের কাছে প্রচার এবং বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও জননেত্রী শেখ হাসিনার নৌকা প্রতিকের জন্য ভোট করুন। তিনি বলেন, আপনারা মনে রাখবেন আওয়ামী লীগ আবারো সরকার গঠন করবে এবং আমাদের নেতা আলহাজ ওমর ফারুক চৌধূরীও এমপি নিবাচিত হয়ে মন্ত্রী সভায় স্থান পাবেনন ইনশাল্লাহ্।

Leave a Reply

এই বিভাগের আরো খবর

৯৭/৩/খ, উত্তর বিশিল, মিরপুর-১, ঢাকা-১২১৬
মোবাইলঃ ০১৭১২-৬৪৩৬৭৩, বার্তা বিভাগঃ ০১৭১২-৬৪৪৩৫০, সার্কুলেশন বিভাগঃ০১৯১৬০৯৯০২০
ইমেইলঃ [email protected], [email protected]

সম্পাদক:
মোঃ সুলতান চিশতী

ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ
মহসিন হাসান খান (বুলবুল)

নির্বাহী সম্পাদকঃ
মোঃ ইব্রাহিম হোসেন

সহকারী সম্পাদকঃ
মোঃ আতোয়ার হোসেন

আইন উপদেষ্টাঃ
শাহিন সরকার


.: Developed By :.
Great IT