২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ১০ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, শরৎকাল

ঝালকাঠিতে বই উৎসবে শিল্পমন্ত্রী

প্রকাশিতঃ জানুয়ারি ১, ২০১৮, ৯:৩০ অপরাহ্ণ


সারাদেশের মতো বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনা আর আনন্দঘন পরিবেশের মধ্যদিয়ে ঝালকাঠিতে বই বিতরণ উৎসব পালিত হয়েছে। আজ সোমবার সকালে ঝালকাঠি সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয় চত্বরে শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই তুলে দিয়ে উৎসব উদ্বোধন করেন শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু। ঝালকাঠি জেলার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে বই উৎসব পালন করা হয়েছে। জেলার ১ হাজার ৪৭টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের মোট ২ লক্ষ ৫২০ জন শিক্ষার্থী ১৬ লাখ ১৭ হাজার ৬২৮ খান নতুন বই শিক্ষার্থীদের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। নববর্ষের প্রথম দিনেই নতুন বই হাতে পেয়ে উচ্ছ্বাসীত ক্ষুদে শিক্ষার্থীরা। উৎসবে প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু বলেন, এক সময় সকল শিক্ষার্থীদের বই দিতে না পারায় অনেককে স্কুলে স্থান দেয়া হত না। কিন্তু শেখ হাসিনার সরকার প্রাথমিক থেকে মাধ্যমিক স্তরের সকল শিক্ষার্থীকে নতুন বইয়ের সাথে উপবৃত্তি দিয়ে দেশে শিক্ষার হার বাড়িয়েছেন। বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে আমাদের দেশের শিক্ষার্থীদের আর্ন্তজাকিত মানের শিক্ষা ব্যবস্থায় গড়ে তোলা হয়েছে বলেও মন্তব্য করেন শিল্পমন্ত্রী। জেলা প্রশাসক মো. হামিদুল হকের সভাপতিত্বে বই বিতরণ উৎসবে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সরদার মো. শাহ আলম, পুলিশ সুপার মো. জোবায়েদুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক খান সাইফুল্লাহ পনির, জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা প্রাণ গোপাল দে, জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো. ছাইয়াদুজ্জামান, সদর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা এ কে এম হারুন অর রশীদ।
নতুন বই পাওয়ার পর নেচে গেয়ে উল্লাস প্রকাশ করছেন তারা। এদিকে বই নিতে সাতসকালেই স্কুলে আসে শিক্ষার্থীরা। এ সময় অনেকে প্রাণখোলা হাসি খুনসুটিতে মেতে ওঠেন। তাদের অনেকের হাতে শোভা পাচ্ছিল নতুন বই, কারও হাতে বেলুন, কারও হাতে জরির ফিতা। বই পেয়েছে- এমন কয়েকজন শিক্ষার্থী বলেন, তাদের খুব ভালো লাগছে। বই পাওয়ার পর প্রবল আগ্রহে শিক্ষার্থীরা প্রত্যেক বই উল্টিয়ে দেখছে। বই পেয়ে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক অভিভাবক সবাই খুশি বলে জানান তারা।
সংশ্লিষ্টরা বলছেন বছরের প্রথম দিনেই শিক্ষার্থীদের হাতে বই পৌঁছে দেয়া সরকারের এটি বড় সাফল্য। জেলার ১ম থেকে ৯ম শ্রেণি পর্যন্ত সংশ্লিষ্ট বিদ্যালয়ের চাহিদা মতে শিক্ষার্থীর জন্য নতুন বই এসেছে বলে নিশ্চিত করেছে সংশ্লিষ্ট দপ্তর। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধানরা বলছেন, বছরের শুরুতেই বই তুলে দিতে পারায় ঝরে পড়া রোধের পাশাপাশি বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি বাড়বে। একটি শিক্ষার্থীও যেন বাদ না পড়ে নতুন বইয়ের ঘ্রাণ থেকে সেদিকে আমাদের আন্তরিক প্রচেষ্টা রয়েছে।

Leave a Reply

৯৭/৩/খ, উত্তর বিশিল, মিরপুর-১, ঢাকা-১২১৬
মোবাইলঃ ০১৭১২-৬৪৩৬৭৩, বার্তা বিভাগঃ ০১৭১২-৬৪৪৩৫০
ইমেইলঃ [email protected], [email protected]

সম্পাদক:
মোঃ সুলতান চিশতী

ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ
মহসিন হাসান খান (বুলবুল)

নির্বাহী সম্পাদকঃ
মোঃ ইব্রাহিম হোসেন

সহকারী সম্পাদকঃ
মোঃ আতোয়ার হোসেন

আইন উপদেষ্টাঃ
শাহিন সরকার


.: Developed By :.
Great IT