২০শে অক্টোবর, ২০১৮ ইং | ৫ই কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, হেমন্তকাল

জাতীয় ক্রিকেট দলের কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে বাদ পরলেন সাব্বির

প্রকাশিতঃ জানুয়ারি ২, ২০১৮, ২:৪৫ অপরাহ্ণ


সাব্বির রহমানকে দর্শক পেটানো ও ম্যাচ রেফারিকে হুমকির দায়ে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) প্রেসিডেন্ট নাজমুল হাসান পাপন সোমবার সংবাদ মাধ্যমকে এ ব্যাপারটি জানান।

বিসিবি শৃঙ্খলা কমিটি জাতীয় চুক্তি থেকে বাদ পড়ার পাশপাশি ২০ লাখ টাকাও জরিমানার সুপারিশ করেছে। এছাড়া ঘরোয়া ক্রিকেটে আগামী ছয় মাস তাকে নিষেধাজ্ঞারও সুপারিশ তারা বোর্ড সভাপতির কাছে জমা দিয়েছে।

সাব্বিরের শাস্তি প্রসঙ্গে পাপন বলেন, ‘সাব্বিরের বিষয়ে আমাদের শৃঙ্খলা কমিটি ইতোমধ্যোই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। হিয়ারিং হয়েছে, আমরা ম্যাচ রেফারির রিপোর্টও পেয়েছি। তার ব্যাপারে প্রস্তাব যেটা এসেছে সেটা হচ্ছে আমাদের যে ন্যাশনাল কন্ট্রাক্ট আছে সেখান থেকে ও বাদ পড়ছে। সাব্বির আমাদের ন্যাশনাল কন্ট্রাক্টের প্লেয়ার আর থাকছে না। প্লাস তারা বলেছে ২০ লাখ টাকা জরিমানা। তাকে ক্যাশ টাকা দিতে হবে। তারপর বলেছে ঘরোয়া ক্রিকেট খেলতে পারবে না ৬ মাসের জন্য। তারমানে সে প্রিমিয়ার লিগও খেলতে পারছে না। অর্থাৎ বড় রকমের অর্থনৈতিক ক্ষতির মুখে সে পড়তে যাচ্ছে।’

পাপন আরও জানিয়েছেন, সাব্বিরের শাস্তি সম্পর্কে শৃঙ্খলা কমিটির দেয়া সুপারিশগুলো এখনই সিদ্ধান্তে পরিণত হয়নি। আগামী বোর্ড সভায় তারা চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন। তিনি এটাও বলে রেখেছেন শৃঙ্খলা কমিটির সুপারিশগুলোই বলবৎ থাকছে। এমনও হতে পারে সাব্বিরের শাস্তির তালিকা আরও বাড়তে পারে।

‘তারমানে আমরা বলছি না এখনই এই সিদ্ধান্ত হয়ে গেছে। প্রস্তাব এসেছে আজকে। আমরা দেখেছি যে শৃঙ্খলা কমিটি কী সিদ্ধান্ত নেয়। তবে তাদের প্রস্তাবে এও এসেছে এবারই তাকে শেষ সুযোগ দেয়া হচ্ছে। তারা এটাও লিখেছে। তারমানে তারা ইন্ডিফিনেট পিরিয়ডের জন্য সাসপেনসনের কথা চিন্তা করেছে। বোর্ড মিটিংয়ে বসেই আমরা চূড়ান্ত করবো। এই সুপারিশগুলো থেকে কমে যাওয়ার সম্ভাবনা কম। আরও বাড়তে পারে। এইগুলো যে থাকছে এই ব্যাপারে কোন সন্দেহ নেই। আরও করা হবে কী না সেটা পরের সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।’
উল্লেখ্য, গত ২১ ডিসেম্বর রাজশাহী শহীদ কামরুজ্জামান স্টেডিয়ামে ১৯তম জাতীয় ক্রিকেট লিগের টায়ার টু এর শেষ রাউন্ডের দ্বিতীয় দিন, গ্যালারি থেকে ১০ কি ১২ বছরের একটি ছেলে সাব্বির মাঠে নামার সময় ‘ম্যাও’ বলেছিল। সেই ছেলেটাকে সাব্বির মাঠ থেকে খেয়াল করেছে।

ম্যাচের এক পর্যায়ে সে অনফিল্ডের দুই আম্পায়ার গাজী আশরাফ সোহেল ও তানভির আহমেদের কাছ ১ ওভারের জন্য বাইরে যাবে বলে অনুমতি নেয়। আম্পায়ার ভেবেছিলেন হয়তো টয়লেটের জন্যই সে অনুমতি দিয়েছে। যা হোক, সে মাঠ থেকে বের হয়ে ছেলেটাকে বল বয় ডেকে আনেন। পরে স্টেডিয়ামের দক্ষিণ দিকের সাইট স্ক্রিনের পেছনে নিয়ে তার কলার ধরে চার থেকে পাঁচটি চড় মারেন।

এখানেই থামেননি এই হার্ড হিটার ব্যাটসম্যান। তিনি কেন এই অন্যায় করেছেন? ম্যাচ রেফারি তা জানতে চাইলে তাকেও হুমকি ধামকি দেন।

Leave a Reply

৯৭/৩/খ, উত্তর বিশিল, মিরপুর-১, ঢাকা-১২১৬
মোবাইলঃ ০১৭১২-৬৪৩৬৭৩, বার্তা বিভাগঃ ০১৭১২-৬৪৪৩৫০
ইমেইলঃ [email protected], [email protected]

সম্পাদক:
মোঃ সুলতান চিশতী

ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ
মহসিন হাসান খান (বুলবুল)

নির্বাহী সম্পাদকঃ
মোঃ ইব্রাহিম হোসেন

সহকারী সম্পাদকঃ
মোঃ আতোয়ার হোসেন

আইন উপদেষ্টাঃ
শাহিন সরকার


.: Developed By :.
Great IT