১২ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ২৮শে কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, হেমন্তকাল

গোপালগঞ্জে ভুয়া সদস্য বানিয়ে প্রকল্পের ১৮ লাখ টাকা আত্মসাৎ : বিপাকে সদস্যরা

প্রকাশিতঃ নভেম্বর ৫, ২০১৮, ৩:৫৪ অপরাহ্ণ



এম শিমুল খান, গোপালগঞ্জ : গোপালগঞ্জে মধুমিতা মাল্টিপারপাস কো-
অপারেটিভ সোসাইটি লিমিটেডে ভুয়া সদস্য বানিয়ে সমবায় ব্যাংক হতে
প্রকল্পের নামে ১৮ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে একটি চক্র। এ ঘটনায়
বিপাকে পড়েছেন ওই সমিতির ভুয়া সদস্যরা।
অনুসন্ধানে জানা যায়, মধুমিতা মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটি
লি: এর নামে ২০১৫ সালে বাংলাদেশ সমবায় ব্যাংক লিঃ এর ব্যবস্থাপনা কমিটির
২৯,৩৬ নং সভার ১৩,২নং সিদ্ধান্ত মোতাবেক ১৮ লাখ টাকা মৎস চাষ প্রকল্পে ঋণ
মঞ্জুর করেন। যার স্মারক নং-প্রকল্প ঋণ-৮৪/১৯৩৮(৬)। উক্ত ঋণের টাকা মধুমিতা
মাল্টিপারপাসের সভাপতি মো: বদরুল হাসান এবং সাধারন সম্পাদক সীমা
রানী দাস। সমবায় ব্যাংক গোপালগঞ্জ শাখার ম্যানেজার মো: শহিদুল্লা হারেজ
এর সহায়তায় জাল জালিয়াতির মাধ্যমে ৬০ জন ভুয়া সদস্য বানিয়ে প্রত্যেকের
নামে ত্রিশ হাজার টাকা ঋণ প্রদান করা হয় মর্মে ১৮ লাখ টাকা উত্তোলন করা
হয়। পরবর্তীতে উক্ত ১৮ লাখ টাকা আত্মসাৎ করে মধুমিতা মাল্টিপারপাস কো-
অপারেটিভ সোসাইটি লি: বন্ধ করে সভাপতি মো: বদরুল হাসান এবং সাধারন
সম্পাদক সীমা রানী দাস লাপাত্তা হয়ে যায়।
বর্তমানে সমবায় ব্যাংক গোপালগঞ্জ শাখা থেকে উক্ত ৬০ জন সদস্যকে টাকা
পরিশোধের জন্য চাপ প্রয়োগ করছে এবং তাদেরকে মামলার ভয় দেখাচ্ছে ব্যাংক
কতৃপক্ষ।
এ বিষয়ে ভুক্তভোগী সোহেল আহম্মেদ জানান, মো: বদরুল হাসান আমার কাছ
থেকে আমার ভোটার আইডি কার্ডের ফটোকপি নিয়েছে জলবায়ু
পরিবর্তনের মোকাবেলায় বৃক্ষ রোপন প্রকল্পে চাকুরী দেয়ার কথা বলে। তবে
আমার কাছ থেকে কোথায়ও কোন স্বাক্ষর নেননি।
ভুক্তভোগী সুকান্ত বিশ্বাস জানান, আমাকে মধুমিতা মাল্টিপারপাস থেকে
লোন দেয়ার কথা বলে মো: বদরুল হাসান আমার ভোটার আইডি কার্ডের
ফটোকপি নেন। তবে আমার কাছ থেকে কোথায়ও কোন স্বাক্ষর নেননি।
বেশির ভাগ ভুক্তভোগীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, তাদের লোন দেয়ার কথা বলে
তাদের ভোটার আইডি কার্ডের ফটোকপি নেন। তবে কোন কাগজে তাদের
কোন স্বাক্ষর নেননি।

এ ছাড়াও ভুক্তভোগীরা বলেছেন, তাদের কোন টাকা বা ব্যাংক চেক দেয়া হয়নি
এমনকি তারা কেউই ৩০০ টাকার নন জুডিশিয়াল স্ট্যাম্পে ওয়াদাবদ্ধ পত্র দেননি।
ভুক্তভোগী সোহেল আহম্মেদ জানান, তারা এ বিষয়ে প্রকল্পের নামে ঋণ
জালিয়াতির শিকার হয়েছেন মর্মে গোপালগঞ্জ জেলা প্রশাসক বরাবর দরখাস্ত
দিয়েছেন এবং ২৯/১০/২০১৮ ইং তারিখে গোপালগঞ্জ সদর থানায় একটি মামলা
(মামলা নং-৬২/৬৩৪) দায়ের করেছেন।

Leave a Reply

৯৭/৩/খ, উত্তর বিশিল, মিরপুর-১, ঢাকা-১২১৬
মোবাইলঃ ০১৭১২-৬৪৩৬৭৩, বার্তা বিভাগঃ ০১৭১২-৬৪৪৩৫০, সার্কুলেশন বিভাগঃ০১৯১৬০৯৯০২০
ইমেইলঃ [email protected], [email protected]

সম্পাদক:
মোঃ সুলতান চিশতী

ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ
মহসিন হাসান খান (বুলবুল)

নির্বাহী সম্পাদকঃ
মোঃ ইব্রাহিম হোসেন

সহকারী সম্পাদকঃ
মোঃ আতোয়ার হোসেন

আইন উপদেষ্টাঃ
শাহিন সরকার


.: Developed By :.
Great IT