২০শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ৫ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, শরৎকাল

গণপূর্তের সেই এক্সইএন’র বদলি

প্রকাশিতঃ সেপ্টেম্বর ৬, ২০১৮, ১:১৫ অপরাহ্ণ


ভোলায় গণপূর্তের সেই অভিযুক্ত দুর্নীতিবাজ নির্বাহী প্রকৌশলী বদিউল আলমের বদলির আদেশ হয়েছে। এতে স্বস্তি বিরাজ করছে ঠিকাদারদের মাঝে। তাঁর বিরুদ্ধে নিজের পছন্দের বিএনপি ও জামায়েতপন্থি কতিপয় ঠিকাদারদেরকে কাজ পাইয়ে দেওয়া এবং ঘুষের বিনিময়ে অন্যদের কাজ পাইয়ে দেওয়ার অভিযোগ ছিল।

বিভিন্ন সূত্রে জানা যায়, ২০১৪ সালের নির্বাচনের পর বদলি হয়ে আসা এই অভিযুক্ত জামায়তপন্থি কর্মকর্তা বিভিন্ন ধরনের অপকর্ম চালিয়েছেন। প্রথম দিকে স্বাভাবিক গতিতে কাজকর্ম চললেও পরবর্তীতে তিনি হয়ে ওঠেন বেপোয়ারা। এ সময় তিনি বেছে নেন কিছু বিএনপি ও জামায়েতপন্থি নেতাকর্মীদের।

প্রতিবছর প্রতিটি জেলার গণপূর্ত নির্বাহী প্রকৌশলী তিন কোটি টাকার কাজ নিজের পছন্দ মতো কোনও ঠিকাদারকে দেওয়ার ক্ষমতা রাখেন। বদিউল আলম সেই কাজগুলো বিএনপি ও জামায়েতপন্থি নেতাদেরকে দিয়েছেন বলে একাধিক সূত্র থেকে অভিযোগ উঠেছে। এর বিনিময়ে তিনি মোটা অংকের টাকার লেনদেন করেছেন বলেও অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বর্তমানে নির্মাণাধীন ভোলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের ভবনটির কাজ বিএনপিপন্থি নেতাকে পাইয়ে দিয়েছেন বলে জানা যায়। এ রকম একমাত্র ভোলার টেক্সটাইল কলেজ ছাড়া সব কাজে তাঁর পছন্দের লোকজন যুক্ত। এ ক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত ডিজিটাল বাংলাদেশের ইজিপি সিস্টেম না মেনে পিপিআর ইডিট করে অন্যকে কাজ পাইয়ে দেন।

পলাশ জমাদার নামের এক ঠিকাদার বলেন, ভোলা গণপূর্তে ৪০ হাজার টাকা দামের একটি কাজও করতে পারলাম না আওয়ামী লীগের আট বছরে। যদি কাজের টেন্ডার দেই তাহলে বিভিন্ন ছুতা ধরে তা বাতিল করে নির্বাহী প্রকৌশলী তাঁর পছন্দের ঠিকাদারকে দিয়ে দিতেন। ওই ঠিকাদার আরো বলেন, ‘উনি ঐশ্বরিক ক্ষমতা ভোলায় ব্যাবহার করেন, যে পিপিআর’র রেটের ওপর টেন্ডার বাজার চলে সেই পিপিআর ইডিট করে।

জানা যায়, কেনও কর্মকর্তা অন্যত্র বদলি হলে তিনি কোনও জামানাত ও নতুন বিলে স্বাক্ষর করতে পারেন না। কিন্তু তিনি কোন‌ও কিছুর তোয়াক্কা না করে ৩ থেকে ৫ আগস্ট অফিসে বসে মোটা অংকের ঘুষের বিনিময়ে বেশ কয়েকটি বিলে স্বক্ষর করেছেন। তবে তিনি নিজেই জামানাতের চেকে স্বাক্ষর করার কথা স্বীকার করেছেন এবং নতুন বিলে ব্যাক ডেটে স্বাক্ষরের কথা অস্বীকার করেন।

Leave a Reply

৯৭/৩/খ, উত্তর বিশিল, মিরপুর-১, ঢাকা-১২১৬
মোবাইলঃ ০১৭১২-৬৪৩৬৭৩, বার্তা বিভাগঃ ০১৭১২-৬৪৪৩৫০
ইমেইলঃ [email protected], [email protected]

সম্পাদক:
মোঃ সুলতান চিশতী

ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ
মহসিন হাসান খান (বুলবুল)

নির্বাহী সম্পাদকঃ
মোঃ ইব্রাহিম হোসেন

সহকারী সম্পাদকঃ
মোঃ আতোয়ার হোসেন

আইন উপদেষ্টাঃ
শাহিন সরকার


.: Developed By :.
Great IT