২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ৮ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, শরৎকাল

ক্রিকেটের অস্তিত্ব সংকট দেখছে আইসিসিই

প্রকাশিতঃ আগস্ট ৯, ২০১৮, ১০:১৩ পূর্বাহ্ণ


বল টেম্পারিং, স্পট ফিক্সিং ও খেলোয়াড়দের অভব্য আচরণ। ক্রিকেটের গায়ে কালিমা কিন্তু কম নয়। এ রকম চলতে থাকলে একসময় খেলাটার ওপর থেকে ভালোবাসা চলে যাবে সমর্থকদের। ক্রিকেট হারাবে জনপ্রিয়তাও। তাহলে করণীয় কী?

উত্তরটা দিলেন আইসিসির প্রধান নির্বাহী ডেভ রিচার্ডসন। তাঁর মতে, আরও কঠোর হতে হবে আইসিসিকে। পরশু ক্রিকেটতীর্থ লর্ডসে এমসিসি স্পিরিট অব ক্রিকেট কাউড্রে বক্তৃতায় তাই ক্রিকেটারদের একরকম হুঁশিয়ারি দিলেন রিচার্ডসন। পরিষ্কার বলে দিলেন ‘ভদ্রলোকের খেলা’ ক্রিকেটে এর চেতনাবিরোধী কোনো কিছুতে ছাড় দেবে না আইসিসি। আইসিসিও অবশ্য এখনো বসে নেই, গত মাসেই বল টেম্পারিং অপরাধের শাস্তি বাড়িয়েছে, বাড়িয়েছে ব্যক্তিগত আক্রমণের শাস্তিও।

বক্তৃতায় অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটারদের বল টেম্পারিং কেলেঙ্কারিকে উদাহরণ হিসেবে টেনেছেন রিচার্ডসন। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে কেপটাউন টেস্টের ওই ঘটনায় পরে নিষিদ্ধ হন অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ, সহ-অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নার ও ব্যানক্রফট।

ওই ঘটনা ক্রিকেটপ্রেমীদের মনে বিরূপ প্রভাব ফেলেছে বলে মনে করেন রিচার্ডসন, ‘অস্ট্রেলিয়া-দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজে নানা ঘটনায় মানুষজন তীব্র প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছে। এগুলো আমাদের চোখ খুলে দিয়েছে। বার্তাটা পরিষ্কার, প্রতারণা প্রতারণাই এবং এসব করার জন্য আমরা ক্রিকেটে মাঠে আসি না।’
এ রকম আরও অনেক ঘটনায় ক্রিকেটের ‘ভদ্রলোকের খেলা’ পরিচিতিটাই হুমকির মুখে বলে মনে করেন রিচার্ডসন, ‘শুদ্ধতার ওপর ভিত্তি করেই গঠিত ক্রিকেটের ডিএনএ। কিন্তু এখন আমরা এত অভব্য আচরণ দেখছি যে ওই ভিত্তিটাই নড়বড়ে হয়ে গেছে। এসব এখনই বন্ধ করতে হবে।’

এ ধরনের আচরণ যে একেবারেই গ্রহণযোগ্য নয়, বক্তৃতায় আরেকবার তা মনে করিয়ে দিলেন রিচার্ডসন, ‘ব্যক্তিগত আক্রমণ করে স্লেজিং, আউট হওয়া ব্যাটসম্যানকে ড্রেসিংরুমের পথ দেখিয়ে দেওয়া, অহেতুক শারীরিক সংঘর্ষ, আম্পায়ারের সিদ্ধান্ত মনঃপূত না হলে খেলতে অস্বীকৃতি, বল টেম্পারিং। আমরা আমাদের খেলার এই চেহারাটা বিশ্বের কাছে দেখাতে চাই না।’

টেম্পারিং-কাণ্ডের পর অনেক ক্রিকেটার নাকি আইসিসিকে বলেছেন কী করলে টেম্পারিং হয়, সেই নিয়মটা পরিষ্কার নয়। রিচার্ডসন ধুয়ে দিয়েছেন ওই সব খেলোয়াড়কে, ‘কয়েক মাসে অনেক খেলোয়াড়ের কথা শুনেছি। তারা জানতে চেয়েছে, চুইংগাম চিবোতে পারবে কি না, সানস্ক্রিন মাখতে পারবে কি না কিংবা চিনিযুক্ত কিছু খেতে পারবে কিনা। সত্যি বলছি আমার কাছে এগুলোকে ভণ্ডামি ছাড়া আর কিছু মনে হয়নি।’

Leave a Reply

৯৭/৩/খ, উত্তর বিশিল, মিরপুর-১, ঢাকা-১২১৬
মোবাইলঃ ০১৭১২-৬৪৩৬৭৩, বার্তা বিভাগঃ ০১৭১২-৬৪৪৩৫০
ইমেইলঃ [email protected], [email protected]

সম্পাদক:
মোঃ সুলতান চিশতী

ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ
মহসিন হাসান খান (বুলবুল)

নির্বাহী সম্পাদকঃ
মোঃ ইব্রাহিম হোসেন

সহকারী সম্পাদকঃ
মোঃ আতোয়ার হোসেন

আইন উপদেষ্টাঃ
শাহিন সরকার


.: Developed By :.
Great IT