১৮ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৪ঠা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, হেমন্তকাল

উবার-লিফট এক বছর বন্ধ থাকবে?

প্রকাশিতঃ আগস্ট ৪, ২০১৮, ১০:৫২ পূর্বাহ্ণ


নিউইয়র্ক শহর থেকে উবার ও লিফটসহ সব অ্যাপসভিত্তিক যাত্রী পরিবহন ব্যবস্থা এক বছরের জন্য বন্ধ রাখতে আইন প্রণয়ন হচ্ছে। এ নিয়ে চূড়ান্ত ভোটাভুটি হবে ৮ আগস্ট। ট্যাক্সি ওয়ার্কার্স অ্যালায়েন্সের তরফে সংবাদ সম্মেলন করে এই তথ্য জানানো হয়েছে। একই সঙ্গে সবার প্রতি অনুরোধ করা হয়েছে, যেন এই আইন পাশে সবাই তার নিজ এলাকার জনপ্রতিনিধিকে চাপ দেন।
উবার এবং অন্যান্য অ্যাপসভিত্তিক সংস্থা তাদের বাণিজ্যে আঘাত আসতে পারে ভেবে এরই মধ্যে মাঠে সক্রিয় হয়েছে। এ অবস্থায় অ্যালায়েন্সের পক্ষ থেকে আশঙ্কা করা হচ্ছে, অ্যাপসভিত্তিক প্রতিষ্ঠানগুলো লাখ লাখ ডলার হাতে নিয়ে বসে আছে। শক্তিশালী উবার কর্তৃপক্ষ অতীতেও অর্থকড়ি দিয়ে জনপ্রতিনিধিদের ভাগানোর চেষ্টা করেছে। এবারও তারা অর্থ ব্যয় করে ট্যাক্সি শ্রমিকদের ভাগ্যোন্নয়নের পক্ষের এই বিলটি পাশে বাধা দিতে পারেন।

সংবাদ সম্মেলনে ট্যাক্সি ওয়ার্কার্স অ্যালায়েন্সের প্রধান নির্বাহী ভৈরবী দেশাই বলেন, ‘অর্থ দিয়ে যেন অ্যাপসভিত্তিক প্রতিষ্ঠানগুলো কিছু না করতে পারে, সে জন্য প্রয়োজনে প্রতিটি জনপ্রতিনিধি, কাউন্সিলম্যান এমনকি মেয়র অফিসে ইমেইল করে, ফোন করে নিজেদের অবস্থান জানিয়ে রাখার অনুরোধ করছি। এই অনুরোধ করছি সব উবার চালক ও ট্যাক্সিচালক ভাইদের প্রতি, যেন তারা বর্তমান ব্যবস্থায় তাদের জীবন-জীবিকা নির্বাহে নিজেদের আয় আরও বাড়াতে পারেন। আমরা চাই না, আর কোনো ট্যাক্সিচালক আত্মহত্যা করুক।’

নিউইয়র্কে যাত্রী পরিবহন ব্যবস্থা কয়েক ভাগে বিভক্ত। একটি হলুদ ট্যাক্সি, একটি সবুজ ট্যাক্সি অন্যটি হলো এফএইচবি বা ফর হায়ার ভেহিক্যাল ব্যবস্থা। উবার, লিমোজিন, জুনো, লিফট প্রভৃতি এই এফএইচভি ক্যাটাগরিতে গাড়ি ভাড়ায় চালানোর জন্য অনুমোদন পেয়ে থাকে। নতুন নিয়ম হলে এফএইচবির অধীনে নতুন কোনো গাড়ির এক বছরের জন্য অনুমোদন দেওয়া হবে। নতুন নিয়মের আওতায় রাস্তায় যে উবার-লিফটসহ এক লাখের বেশি গাড়ি আছে, সেগুলো রাস্তায় সচল থাকবে। তবে নির্দিষ্ট সময়ের পর নতুন করে আর উবার-লিফটের আবেদন করা যাবে না।

ট্যাক্সি ওয়ার্কার্স অ্যালায়েন্সের বাংলাদেশি সংগঠক টিপু সুলতান বলেন, ‘৮ আগস্ট ভোট হবে, সেখানে ভোটাভুটির ওপর নির্ভর করেই এই আইন হবে। আমরা অনেকটাই নিশ্চিত, মিরাকল কিছু না হলে এটি আইনে পরিণত হবে। আইনটি হলে বর্তমানে যারা উবার-লিফটসহ ভাড়ায় যাত্রী পরিবহন করেন এবং একই সঙ্গে ট্যাক্সি চালিয়ে জীবন চালান, তাদের আয় বাড়ার সম্ভাবনা তৈরি হবে। কেননা, প্রতিদিন নতুন হাজারো অ্যাপসভিত্তিক গাড়ি নামছে রাস্তায়। যত নতুন গাড়ি নামছে তত প্রতিযোগিতায় পিছিয়ে পড়ছেন হাড়ভাঙা খাটুনির ট্যাক্সি চালকেরা। উবারের চালকেরাও পয়সা কমে যাওয়ার কারণে পেশা বদল করতে বাধ্য হচ্ছেন। এই নিয়ম হলে, ট্যাক্সি-উবার চালকদের সুবিধা হবে’।

এদিকে নতুন এই নিয়ম হলে, বর্তমানের পড়তি দরের হলুদ ট্যাক্সি এবং উবারের যেসব গাড়ি আছে, সেগুলোর বাজারমূল্য অনেক বেড়ে যাবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশি উবার চালক এম এম হক। তিনি বলেন, ‘ধরুন প্রতিদিন রাস্তায় হাজারো নতুন উবার নামছে, কিন্তু হলুদ ট্যাক্সি নামছে না। কিন্তু যাত্রী পরিবহনে উবার-হলুদ ট্যাক্সির একই অনুমতি আছে। যখন উবারের আর নতুন গাড়ি নামবে না তখন একেকটি বর্তমানের উবার লাইসেন্সের মর্যাদা ট্যাক্সির লাইসেন্সের মর্যাদার সমান হয়ে যাবে। সে ক্ষেত্রে ভাড়া ও আয় দুটোই বেড়ে যাবে। হাজার হাজার মানুষ যারা আয় কম বলে উবার ছেড়ে দেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন—এই আইন হলে তারা হয়তো আবার নতুন আশা খুঁজে পেতে পারেন’।

নিউইয়র্ক নগরের জনপ্রতিনিধিরা মিলে ৮ আগস্ট এই প্রস্তাবকে ভোট দিয়ে আইনে পরিণত করা পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে চালকদের। তবে এরই মধ্যে কাজ থেকে বিতাড়িত উবার চালকদের কর্মহীনতার ভাতা বা বেকারত্ব ইনস্যুরেন্স পাওয়ার বিধান প্রবর্তিত হয়েছে। এর বাইরে, অনিয়ম করে উবার কর্তৃপক্ষ এত দিন ধরে চালকদের ঠকানো প্রায় ৬ কোটি ডলার তাদের ব্যাংক হিসাবে ফেরত পাঠাচ্ছে বলে জানানো হয়েছে সংবাদ সম্মেলনে।

Leave a Reply

৯৭/৩/খ, উত্তর বিশিল, মিরপুর-১, ঢাকা-১২১৬
মোবাইলঃ ০১৭১২-৬৪৩৬৭৩, বার্তা বিভাগঃ ০১৭১২-৬৪৪৩৫০, সার্কুলেশন বিভাগঃ০১৯১৬০৯৯০২০
ইমেইলঃ [email protected], [email protected]

সম্পাদক:
মোঃ সুলতান চিশতী

ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ
মহসিন হাসান খান (বুলবুল)

নির্বাহী সম্পাদকঃ
মোঃ ইব্রাহিম হোসেন

সহকারী সম্পাদকঃ
মোঃ আতোয়ার হোসেন

আইন উপদেষ্টাঃ
শাহিন সরকার


.: Developed By :.
Great IT