২২শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ৭ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, শরৎকাল

ইসলামের দৃষ্টিতে দেশপ্রেম

প্রকাশিতঃ ফেব্রুয়ারি ১৫, ২০১৮, ১২:১১ পূর্বাহ্ণ


জহির উদ্দিন বাবর:
প্রকৃতির ধর্ম ইসলাম কোনো ধরনের দাসত্বকে সমর্থন করে না। এমনকি রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক ও সামাজিক এসব দাসত্বও ইসলামে সমর্থনযোগ্য নয়। পৃথিবীর সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ রাষ্ট্রনায়ক ছিলেন ইসলামের নবী হজরত মুহম্মদ (সা.)। ইসলামে স্বাধীনতা ও জাতীয়তাবোধের চেতনা থেকে প্রায় সাড়ে চৌদ্দশ বছর আগে তিনি মদিনা নগরীতে একটি স্বাধীন-সার্বভৌম ইসলামী রাষ্ট্রের গোড়াপত্তন করেছিলেন। মদিনা সনদ নামে খ্যাত সংবিধানের ভিত্তিতে গড়ে তুলেছিলেন একটি কল্যাণ রাষ্ট্র। একটি স্বাধীন কল্যাণ রাষ্ট্র পরিচালনার জন্য এটিই পৃথিবীর প্রথম লিখিত ‘শাসনতন্ত্র-সংবিধান’। জাতি, ধর্ম, বর্ণ, নির্বিশেষে সবার ধর্মীয় স্বাধীনতা নিশ্চিত করা হয়েছিল তাতে। এছাড়া চিন্তা ও মত প্রকাশের পূর্ণ সুযোগ দান করে মহানবী (সা.) ব্যক্তি স্বাধীনতাকে সামাজিক ও রাষ্ট্রীয়ভাবে প্রতিষ্ঠা করেন। ইসলামে দেশপ্রেম ও দেশাত্মবোধকে সবকিছুর ঊর্ধ্বে স্থান দেয়ার কথা বলা হয়েছে। নবীর আদর্শে গড়া সাহাবায়ে কেরামও স্বদেশকে খুব ভালোবাসতেন। হিজরতের পর মদিনায় হজরত আবু বকর (রা.) ও হজরত বেলাল (রা.) জ্বরে আক্রান্ত হয়েছিলেন। অসুস্থ অবস্থায় তাদের মনেপ্রাণে স্বদেশ মক্কার স্মৃতিচিহ্ন জেগে উঠেছিল। তারা জš§ভূমি মক্কার দৃশ্যাবলি স্মরণ করে কবিতা আবৃত্তি করতে লাগলেন। এ অবস্থায় নবী করিম (সা.) সাহাবিদের মনের এ দুরবস্থা দেখে প্রাণভরে দোয়া করলেন, ‘হে আল্লাহ, আমরা মক্কাকে যেমন ভালোবাসি, তেমনি তার চেয়েও বেশি মদিনার ভালোবাসা আমাদের অন্তরে দান করুন’ (বুখারি)। দেশপ্রেম ও জাতীয়তাবোধে বলিষ্ঠ প্রতিটি নাগরিকের উচিত দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব সুরক্ষিত করার সংগ্রামে আত্মনিয়োগ করা। যারা দেশকে ভালোবাসে, যারা দেশের সীমানা রক্ষার জন্য ত্যাগ স্বীকার করে তাদের সম্পর্কে হজরত রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, ‘এক দিন ও এক রাতের সীমান্ত পাহারা ধারাবাহিকভাবে এক মাসের সিয়াম সাধনা ও সারারাত নফল ইবাদতে কাটানো অপেক্ষা উত্তম’ (মুসলিম)। এ ছাড়া দেশপ্রেমকে জাহান্নামের রক্ষাকবচ হিসেবে উল্লেখ করে হজরত রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, ‘দুই ধরনের চক্ষুকে জাহান্নামের আগুন কখনো স্পর্শ করবে না। এক. সেই চক্ষু যা আল্লাহর ভয়ে কাঁদে; দুই. যে চক্ষু আল্লাহর পথে (সীমান্ত) পাহারাদারি করতে করতে রাত কাটিয়ে দেয়’ (তিরমিজি)। তাই আসুন, ইসলামের প্রেরণায় উদ্বুদ্ধ হয়ে দেশের জন্য কিছু করার মানসিকতা লালন করি, দেশকে ভালোবাসি, দেশের জন্য আত্মত্যাগে সব সময় প্রস্তুত থাকি।
লেখক: শিক্ষক

Leave a Reply

৯৭/৩/খ, উত্তর বিশিল, মিরপুর-১, ঢাকা-১২১৬
মোবাইলঃ ০১৭১২-৬৪৩৬৭৩, বার্তা বিভাগঃ ০১৭১২-৬৪৪৩৫০
ইমেইলঃ [email protected], [email protected]

সম্পাদক:
মোঃ সুলতান চিশতী

ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ
মহসিন হাসান খান (বুলবুল)

নির্বাহী সম্পাদকঃ
মোঃ ইব্রাহিম হোসেন

সহকারী সম্পাদকঃ
মোঃ আতোয়ার হোসেন

আইন উপদেষ্টাঃ
শাহিন সরকার


.: Developed By :.
Great IT